Home > খেলাধুলা > সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন ইউসুফ পাঠান

সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন ইউসুফ পাঠান

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ভারতের তারকা ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠান। রঙিন জার্সিতে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করা এই অলরাউন্ডার শুক্রবার টুইটারে এক পোস্টের মাধ্যমে ক্রিকেটকে বিদায় বলে দেন।

ইউসুফ ভারতের হয়ে দুটি বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য ছিলেন। ২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর ঘরের মাঠে ২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী দলেও ছিলেন তিনি। দেশের হয়ে তিনি ৫৭ ওয়ানডে ও ২২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন।

টুইটার পোস্টের ক্যাপশনে ইউসুফ লেখেন, ‘আমি আনুষ্ঠানিকভাবে সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলাম। আমাকে সমর্থন ও ভালোবাসার জন্য আমার পরিবার, ভক্ত, বন্ধু, সতীর্থসহ পুরো দেশবাসীকে আমি মনে প্রাণে ধন্যবাদ দিতে চাই । আমি নিশ্চিত আপনারা অতীতের মতো ভবিষ্যতেও আমাকে উৎসাহিত করবেন।’

জাতীয় দলের জার্সিতে ইউসুফের আগমন ঘটে একদিনের ফরম্যাটে। ২০০৭ সালের জুনে পাকিস্তানের বিপক্ষে ঢাকায় তার পথচলা শুরু হয়। ২০১২ সাল পর্যন্ত খেলেন ৫৭ ম্যাচ। তার শেষ ম্যাচটিও ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে ঢাকায়।

৫৭ ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে করেন ৮১০ রান। সর্বোচ্চ খেলেন ১২৩ রানের ইনিংস। সেঞ্চুরি ২টি ও হাফসেঞ্চুরি ৩টি। বল হাতে ৫৭ ম্যাচে নেন ৩৩ উইকেট। সর্বোচ্চ ৪৯ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। ইউসুফ ২০১১ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য ছিলেন।

২০০৭ সালের জুনে ওয়ানডে অভিষেকের দুই মাস পর পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণে তার অভিষেক ঘটে। সর্বশেষ ম্যাচ খেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২০১২ সালে। দেশের হয়ে ২২টি টি-টোয়েন্টি খেলে তিনি ২৩৬ রান করেন। উইকেট নেন ১৩টি।

২০১২ সালের পর তাকে আর জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যায়নি। তবে ২০১৯ সালের আসর পর্যন্ত আইপিএলে ছিলেন নিয়মিত মুখ। এরপরে কোনো দল তার প্রতি আর কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি আগ্রহ দেখায়নি। তিনি আইপিএলে সর্বশেষ খেলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। সর্বশেষ তিনি ব্যাট-বল হাতে ২২ গজে নেমেছিলেন রঞ্জি ট্রফিতে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে বারোদার হয়ে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ