Home > খেলাধুলা > হায়দরাবাদকে হারিয়ে শীর্ষে ফিরলো মুম্বাই

হায়দরাবাদকে হারিয়ে শীর্ষে ফিরলো মুম্বাই

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ইনিংসে ১৪টি ছয়, আর সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মাত্র ৭টি। দুই দলের তফাতের প্রতিচ্ছবি এটি। শারজাহতে হায়দরাবাদকে ৩৪ রানে হারিয়ে আইপিএলের পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে ফিরলো মুম্বাই।

ইনিংসের পঞ্চম বলে রোহিত শর্মা (৬) আউট হলেন। পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার এক বল আগে সূর্যকুমার যাদবকে (২৭) ফিরতে হয়। মুম্বাইয়ের এই দুঃসময়ে ইশান কিষাণকে নিয়ে ক্রিজে দাঁড়িয়ে যান কুইন্টন ডি কক। দুজনের ৭৮ রানের জুটি ভাঙে দলীয় ১২৬ রানে। ৩৯ বলে চারটি করে চার ও ছয়ে ইনিংস সেরা ৬৭ রান করে রশিদ খানের ফিরতি ক্যাচ হন ডি কক। ইশান তার উইকেট হারান ৩১ রানে।

পরে কিয়েরন পোলার্ডের সঙ্গে ঝড় তোলেন হার্দিক পান্ডিয়া। ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে তিনি ২৮ রানে আউট হলে তার বড় ভাই ক্রুনাল পান্ডিয়া শেষ চার বলে দুটি করে চার ও ছয় মারেন। তাতে শেষ ওভারে ২১ রান করে মুম্বাই। মাত্র ৪ বলে ২০ রানে অপরাজিত ছিলেন ক্রুনাল, ১৩ বলে ১৫ রানে খেলছিলেন কিয়েরন পোলার্ড।

হায়দরাবাদের পক্ষে সিদ্ধার্থ কৌল ও সন্দীপ শর্মা দুটি করে উইকেট নেন।

লক্ষ্যে নেমে ৩৪ রানে প্রথম উইকেট হারালেও হায়দরাবাদকে পথে রেখেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মানীষ পান্ডে। ৬০ রানে এই জুটি ভাঙার পর ট্রেন্ট বোল্ট, জসপ্রীত বুমরাহ ও জেমস প্যাটিনসনের বোলিং তোপে পড়ে হায়দরাবাদ। তাতে এবারের আইপিএলে নিজের প্রথম হাফসেঞ্চুরি করেও দলকে জেতাতে পারেননি অধিনায়ক ওয়ার্নার। ৪৪ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে ৬০ রানে অপরাজিত ছিলেন অজি ওপেনার। এছাড়া হায়দরাবাদের উল্লেখযোগ্য ইনিংস খেলেন মানীষ পান্ডে, ১৯ বলে ৩০ রান।

হায়দরাবাদ থামে ৭ উইকেটে ১৭৪ রানে। ৪ ওভারে ২৮ রান নিয়ে দুটি উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা বোল্ট। সমান উইকেট নেন প্যাটিনসন ও বুমরাহ।

পাঁচ ম্যাচে তৃতীয় জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে টপকে শীর্ষে মুম্বাই। টানা দুই ম্যাচ জেতা হায়দরাবাদ তৃতীয় হারে ষষ্ঠ স্থানে। মুম্বাইয়ের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে সমান ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিল্লি ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ