Home > খেলাধুলা > যদি একদিন এমন হতো, সেদিন সব খাওয়া যেত…

যদি একদিন এমন হতো, সেদিন সব খাওয়া যেত…

মাঠে নিজেদের সর্বোচ্চটা উজার করে দেওয়ার জন্য ক্রিকেটাররা এখন আগের থেকে অনেক সচেতন। প্রিয় ও পছন্দের খাবার ত্যাগ করার পাশাপাশি খাদ্যাভাসে বিশাল পরিবর্তন এনেছেন সব ক্রিকেটার।

তামিম ইকবালের কথাই ধরুন। ভোজনরসিক হিসেবে তামিমের আলাদা খ্যাতি আছে।বিরিয়ানি খুব প্রিয় খাবার বাঁহাতি ওপেনারের। অথচ ফিটনেস ধরে রাখতে সেই তামিম বিরিয়ানি বিসর্জন দিয়েছেন। শুধু তামিম-ই নয়, জাতীয় দলের এক ক্রিকেটার গোশতে বেশি মশলা থাকায় সেই গোশত ধুয়ে খেয়েছেন। কেউ কেউ তেল-চর্বি পরিহার করেছেন আজীবনের জন্য। কাঁচা চিনি বা লবনের ধারে-কাছেও যাচ্ছেন না কেউ।

তবুও মুখের স্বাদ সবারই থাকে। মনের ইচ্ছা কোনো বাঁধ মানে না। নিয়ন্ত্রণ সব সময় থাকে না। যদি একদিন এমন হতো, সেদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পৃথিবীর সব খাওয়া যেত, কিন্তু শরীরে কোনো প্রভাব পড়বে না…তাহলে মাশরাফি, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ কি খেতেন?

নিজের নিয়মিত লাইভ আড্ডার অনুষ্ঠানে তামিম জাতীয় দলের তিন সতীর্থর কাছে এই কথা জানতে চেয়েছিলেন। তাঁদের মুখেই শুনুন বাকিটা— মুশফিক বলেছেন, ‘আমি খিচুড়ি বেশ পছন্দ করি। যদি এমন দিন আসত তাহলে ওটা অবশ্যই খেতে চাইতাম। ডেজার্ট খুব বেশি না…আমার বউ যেই শাহী টুকরাটা বানায় সেটা খেতাম। ওইটা অনেক স্পেশাল। আইসক্রিম অনেক পছন্দের। ইচ্ছামতো আইসক্রিম খেতাম…এই আর কি!’

মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘মিষ্টি জাতীয় যত খাবার আছে সব। আমার বউয়ের হাতে গাজরের হালুয়া থেকে শুরু করে, মায়ের বানানো পায়েস, আমার শ্বাশুড়িও মাশাআল্লাহ পায়েস ভালো রান্না করে…ডেজার্ট যা আছে সব খাবো। একেবারে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সব খাবো সব। লাড্ডু, তাইজুলের নাটোরের কাঁচাগোল্লা…সব খাবো একদিনে।’

সবশেষ মাশরাফিকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি উল্টো বলেন, ‘আমি তো খাওয়ার ভেতরেই আছি, আমাকে প্রশ্ন কর কি কি খাবেন না।’ পরে তামিম আবার বলেন, ‘ভাত, গরুর গোশত সব চলছে?’ মাশরাফি উত্তর দেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ।’

মাহমুদউল্লাহ মাশরাফিকে জিজ্ঞেস করেন, ‘ছোলা, ভাত, পিঁয়াজু মাখিয়ে সব একসঙ্গে খাওয়া হচ্ছে?’ মাশরাফি উত্তর দেন, ‘ঘোড়ার মতো, একেবারে ঘোড়ার মতো।’ মাশরাফির উত্তরে হাসির রোল পড়ে যায় লাইভ আড্ডায়।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ