Home > খেলাধুলা > বিস্মিত সানী সুযোগের অপেক্ষায়

বিস্মিত সানী সুযোগের অপেক্ষায়

বাংলাদেশের জার্সিতে সবশেষ ম্যাচ খেলেছেন ভারতে। সেই ভারত সফর দিয়েই আবার জাতীয় দলে ফিরেছেন আরাফাত সানী। বাঁহাতি স্পিনার এবার একাদশে সুযোগের অপেক্ষায় আছেন।

২০১৬ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলেছিলেন সানী। বিশ্বকাপে বোলিং অ্যাকশনের জন্য অভিযুক্ত হয়েছিলেন, পরে হয়েছিলেন নিষিদ্ধ। অ্যাকশন শুধরে ফিরলেও আর জাতীয় দলে ফেরা হয়নি। এর মাঝে আবার স্ত্রীর করা মামলায় তিন মাস ছিলেন জেলে।

তিন বছর পর ভারতের মাটিতেই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার পুনরুজ্জীবনের সুযোগ পেয়েছেন সানী। ডাক পেয়েছেন তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে। সফর সামনে রেখে শুক্রবার শুরু হয়েছে প্রস্তুতি ক্যাম্প। এদিন প্রথমবারের মতো দলে যোগ দেন স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। প্রথম দিনের অনুশীলনের পর সংবাদমাধ্যমের সামনে কথা বলেছেন সানী:

দলে ডাক পেয়ে অবাক হয়েছিলেন কি না?

আরাফাত সানী: অবশ্যই অবাক হয়েছিলাম। তবে আরেকটি জিনিস ঠিক ছিল যে, গত তিন বছর কিন্তু ভালো ক্রিকেট খেলছিলাম। লক্ষ্য ছিল যে, আমার সেরা পারফর্মটা করার। এর জন্য হয়তো আমাকে বিবেচনা করেছে।

চ্যালেঞ্জ এবং পরিকল্পনা

আরাফাত সানী: খেলাটি সব সময় চ্যালেঞ্জিং ছিল। এখনো আছে, এটা চ্যালেঞ্জেরই একটি খেলা। খেলোয়াড় হিসেবে আমাদের কাজ হচ্ছে চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলাটি এগিয়ে নেওয়া। আমাদের যে ব্যক্তিগত পরিকল্পনা আছে নিজেদের বিভাগ থেকে….যেহেতু আমি বাঁহাতি স্পিনার তাই কীভাবে রান চেক দিয়ে কীভাবে উইকেট টু উইকেট বোলিং করব বা উইকেট বের করার জন্য অবশ্যই সেই পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছি।

ভারতে শেষ, আবার ভারতে শুরু…

আরাফাত সানী: তিন বছর আগে আমি ভারতে বোলিং অ্যাকশনের কারণে বাদ পড়েছিলাম, এবার সেখানে আবার সফর করছি। অবশ্যই নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব, যেহেতু অনেক দিন পর আমি সুযোগ পেয়েছি। আমি আমার আগের জায়গাটা ধরে রাখার জন্য যা যা করা দরকার, সেটাই করব।

ভেট্টোরির সঙ্গে কাজ…

আরাফাত সানী: একজন বাঁহাতি স্পিনার হিসেবে সব সময় কিন্তু আমরা ওর বোলিংটা অনুসরণ করতাম। যেহেতু উনি একজন গ্রেট স্পিনার বাঁহাতিদের মধ্যে। সে আমার এখন কোচ, আজকে তো প্রথম দিন। দেখা যাক অনুশীলন তো আরো আছে। দলের সঙ্গে আছি, তার সঙ্গে শেয়ার করব কীভাবে কী করা যায়। কারণ তার অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলোয়াড় তো তিনি ছিলেনই, আইপিএলেও কোচিং করিয়েছেন। তার সঙ্গে কথা বলে আরো ভালো পারফরম্যান্স করতে পারব। তার সঙ্গে শেয়ার করলে হয়তো আরো উন্নতি সম্ভব হবে।

কী জিনিস নিয়ে কথা হয়েছে?

আরাফাত সানী: আজকে যেহেতু প্রথম দিন, সবাইকে শুধু দেখেছে। তেমন কোনো কথা হয়নি। হয়তো কাল এটি নিয়ে কথা বলব, বা পরবর্তী যেদিন অনুশীলন হবে সেদিন হয়তো আলোচনা করা হবে।

কোন কোন জায়গায় ভেট্টোরির সঙ্গে কাজ করতে চান?

আরাফাত সানী: উন্নতি বলতে আসলে কোন উইকেটে কেমন বোলিং করতে হবে সেটা জরুরি। ভারতে কিন্তু অনেক ম্যাচ খেলেছেন তিনি, কোচিংও করাচ্ছেন। তাই উইকেটটি কিন্তু আমাদের চেয়ে সে অনেক ভালো জানে। কোন উইকেটগুলো কীরকম হতে পারে, কীভাবে বোলিং করলে ভালো পারফর্ম করা যায় সেদিক থেকে এই জিনিসগুলোর ব্যাপারে আমি আইডিয়া নেওয়ার চেষ্টা করব।

ভেট্টোরি কতটা সমর্থন দেবেন?

আরাফাত সানী: উনি হয়তো উপমহাদেশের না। কিন্তু আমরা তো উপমহাদেশের। ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কায় উইকেট অনেকটা একই। হয়তো তিনি সফল হতে পারেননি বা পারফর্ম করতে পারেননি। হয়তো এখানে করতে পারেন। তার ধারণা কিন্তু অবশ্যই আছে। অভিজ্ঞতাও আছে। সেটা অনুসরণ করলে আমাদের জন্য ভালো হতে পারে।

পরিকল্পনা কীভাবে করছেন?

আরাফাত সানী: আমি অনেক দিন পর দলে। আজকেই প্রথম অনুশীলন শুরু হয়েছে। যেহেতু আমাদের কম্পিউটার অ্যানালিস্ট আছে। ভিডিও দেখব আগে। কীভাবে তাদের আটকানো যায় বা বোলিং করলে ভালো করতে পারব, সেটা নিয়ে আলোচনা করব। এখনো তেমন আলোচনা করিনি। এখনো সময় আছে। যাওয়ার আগে পরিকল্পনা করব এটা নিয়ে।

সুযোগ পাবেন কি না?

আরাফাত সানী: এটা অনুশীলনের ওপর নির্ভর করবে, তারপর অনেক কিছু আছে। উইকেট আছে, তারপর টিম ম্যানেজমেন্ট সেরা একাদশ করবে। আমরা এখনো ওখানে যাইনি। এটা আগে থেকে বলা কঠিন। ম্যানেজমেন্ট সেরা কম্বিনেশনটাই চেষ্টা করবে ম্যাচ খেলানোর জন্য। এটা মাথায় আছে। সুযোগের অপেক্ষায় অবশ্যই আছি। আমি যখনই সুযোগ পাই। আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’

জিতবেন কি না?

আরাফাত সানী: ইনশাআল্লাহ। অবশ্যই আমরা জেতার জন্য যাচ্ছি। সেরাটা অবশ্যই দিব আমাদের। প্রথম তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। এটা নিয়েই কাজ করছি। সবারই লক্ষ্য থাকে ম্যাচ জেতা। তো আমাদের পরিকল্পনাও আছে ম্যাচ জেতা।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ