Home > খেলাধুলা > শর্ট বলে সতীর্থদের বুদ্ধি খাটানোর তাগিদ সৌম্যর

শর্ট বলে সতীর্থদের বুদ্ধি খাটানোর তাগিদ সৌম্যর

ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসারদের শর্ট বলে উইকেট বিলিয়ে এসেছিলেন তামিম ইকবাল, লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। শর্ট বলে ভুগেছেন বাকিরাও। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে একই অস্ত্র ব্যবহার করবে ক্যারিবীয় পেসাররা।

সিলেটে শর্ট বলে পাল্টা আক্রমণ চালিয়ে ভুল করেছিলেন ব্যাটসম্যানরা। ঢাকায় বৃহস্পতিবার একই আক্রমণ করবে সফরকারীরা। প্রথমবার ভুল করলেও এবার সতীর্থদের বুদ্ধি খাটানোর তাগিদ দিলেন সৌম্য। তার মতে, পেসারদের ভালোভাবে সামলে সহজেই বড় পুঁজি পাওয়া সম্ভব।

ম্যাচের আগের দিন সৌম্য বলেছেন, ‘ওদের শর্ট বল নিয়ে কোনো চিন্তা করছি না। আমার কাছে মনে হয় ওরা শর্ট বল করেছে, আমরা দৌড়ায়ে মারতে গিয়েছি। এটা সাহসের ব্যাপার। শর্ট বলের মধ্যেও জোরে বলে মারতে গিয়েছি। আমরা পিছিয়ে গিয়ে আউট হলে বলা যেত যে আমরা শর্ট বলের ভয়ে আউট হয়েছি। সামনে গিয়ে আউট হয়েছি। জোরে বল আমরা আরো জোরে মারতে গিয়ে আউট হয়েছি। আমরা যদি বুদ্ধি খাটিয়ে প্লেসিং করার চেষ্টা করতাম, টাইমিং করে খেলতাম তাহলে ভালো হতো।’

‘ওরা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দল, এই ফরম্যাটে। চেষ্টা তো করছি তাদের সাথে তাল মিলিয়ে চলার। প্রথম ম্যাচে বুদ্ধির ঘাটতি ছিল। আমরা শুরুতেই তাদেরকে চার্জ করতে গিয়েছি। আমরা যদি বুদ্ধি খাটিয়ে খেলতাম, পেসারদের প্রথম কিছু ওভার যদি আমরা হ্যান্ডেল করতাম, তাহলে শেষের দিকে আমরা রান আরো কাভার করতে পারতাম। উইকেট ‍শুরুতে পড়ে যাওয়ায় মাঝখানে একটু স্লো খেলা লাগছে।’

ব্যাটসম্যানদের পরিকল্পনা নিয়ে সৌম্য বলেন, ‘প্রথম দিকে আমরা যারা আছি, তারা যদি পাওয়ার প্লে’টা সুন্দরভাবে ব্যবহার করতে পারি, উইকেটটা হাতে রাখতে পারি, শেষের দিকে স্কোর ভালো হবে। শেষের দশ ওভার উইকেট রেখে খেললে আরো ভালো রান আসবে।’

বৈরী আবহাওয়ায় বাড়তি শৈতপ্রবাহ। প্রচন্ড ঠান্ডায়ও দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বাদে সবাই নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছেন ভালোভাবে। সিরিজে পিছিয়ে থেকে বৃহস্পতিবার সফরকারীদের আতিথ্য দেবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি জিতলে সমতা আনবে বাংলাদেশ, হারলে সিরিজ হাতছাড়া।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ