Home > খেলাধুলা > টসে জিতে ব্যাটিংয়ে ভারত

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে ভারত

খেলা প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: দীর্ঘ সাড়ে পাঁচ বছর
পর ভারতের বিপক্ষে টেস্ট
ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে
বাংলাদেশ।
আজ সিরিজের একমাত্র
টেস্টে মুখোমুখি হবে দুই দল।
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান
সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট
স্টেডিয়ামে সকাল ১০টায় শুরু
হতে যাওয়া এই ম্যাচে টসে
জিতে ব্যাটিংয়ের
সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত।
সবশেষ ২০১০ সালের
জানুয়ারিতে টেস্ট
খেলেছিল বাংলাদেশ ও
ভারত। মিরপুরে অনুষ্ঠিত ওই
ম্যাচে ১০ উইকেটে
হেরেছিল স্বাগতিকরা। অবশ্য
ভারতের বিপক্ষে টেস্টে
কখনোই জয়ের মুখ দেখেনি
বাংলাদেশ।
ভারতীয়দের বিপক্ষে খেলা
সাত টেস্টের মধ্যে ছয়টিতে
হার এবং একটিতে ড্র করেছে
টাইগাররা।
তবে আগের চেয়ে
বাংলাদেশ দল এখন অনেক
পরিণত দল। বিশেষ করে গত
বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশ
যেন চমক সৃষ্টিকারী দলে
পরিণত হয়েছে।
বিশ্বকাপে অসাধারণ
পারফরম্যান্সের পর নিজ
দেশে ওয়ানডে ও টি-
টোয়েন্টি সিরিজে
পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ
করে বাংলাদেশ। এর ফলে
ভারতের বিপক্ষে মাঠে
নামার আগে পাকিস্তান
সিরিজ থেকে অনুপ্রেরণাই
পাচ্ছেন সাকিব-তামিম-
মুশফিকরা।
এমন উজ্জীবিত
বাংলাদেশের সঙ্গে
খেলতে নামছে গত
বিশ্বকাপের
সেমিফাইনালিস্টরা।
গতকাল খেলা শুরুর আগে
সংবাদ সম্মেলনে
বাংলাদেশ অধিনায়ক
মুশফিকুর রহিম বলেছিলেন,
ভারত তো এলিয়েন না যে
তাদের হারানো যাবে না।
ভারতকে সম্মান জানিয়ে
তিনি বলেছিলেন, অবশ্যই
ভারত ভালো দল। আমরা যদি
ভালোভাবে খেলি তাহলে
জয় তুলে নেয়া সম্ভব। তারপরও
যদি জয় না পাই অন্তত ম্যাচটি
ড্র করতে চাই।
অন্যদিকে বাংলাদেশকে
সমীহ করে ভারত অধিনায়ক
বিরাট কোহলি বলেছিলেন
বাংলাদেশ এখন অনেক
ভালো খেলছে। তারা এখন
আগের চেয়ে অনেক
শক্তিশালী। তাই
বাংলাদেশকে ছোট করে
দেখার সুযোগ নেই।
পাকিস্তানের বিপক্ষে
টেস্টে দারুণ ব্যাটিং
করেছেন বাংলাদেশের দুই
ওপেনার তামিম ইকবাল ও ইমরুল
কায়েস। তরুণ তুর্কি সৌম্য
সরকার বড় ইনিংস খেলতে না
পারলেও মন্দ করেননি। সাকিব
আল হাসানও কম যাননি।
প্রথম টেস্ট আঙুলে চোট
পাওয়ায় অধিনায়ক মুশফিকুর
রহিম অবশ্য খুব একটা সুবিধা
করতে পারেননি। তবে
ভারতের বিপক্ষে ভালো
করতে বদ্ধপরিকর মুশফিক।
পাকিস্তান সিরিজের মতো
ভারতের বিপক্ষে জ্বলে
উঠতে পারেন তামিম-ইমরুলরা।
আর মাত্র সাত রান করলে
হাবিবুল বাশারকে ছাড়িয়ে
টেস্টে বাংলাদেশের
সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হবেন
তামিম ইকবাল।
আঙুলের চোট এখনো পুরোপুরি
সেরে না ওঠায় ভারতের
বিপক্ষে শুধু ব্যাটসম্যান
হিসেবে খেলতে পারেন
মুশফিক। সে ক্ষেত্রে
অভিষেক হতে পারে
উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন
দাসের।
এ ছাড়া ইনজুরিতে সিরিজ
থেকে ছিটকে পড়া
মাহমুদউল্লাহর বদলে
স্কোয়াডে আসা নাসির
হোসেনের একাদশে থাকার
সম্ভাবনাও প্রবল।
বাংলাদেশের পেস
বোলিংয়ের নেতৃত্ব দেবেন
রুবেল হোসেন। তার সঙ্গে
দেখা যেতে পারে
মোহাম্মদ শহীদ অথবা আবুল
হাসান রাজুকে। স্পিনে
তাইজুল ইসলামের সঙ্গে
একাদশে থাকতে পারেন
জুবায়ের হোসেন। এ ছাড়া
সাকিব তো আছেনই।
অপরদিকে বিরাট কোহলির
নেতৃত্বে মাঠে নামতে
যাচ্ছে ভারত। টেস্ট র্যাং
কিংয়ে তিন নম্বরে থাকা
ভারতের ব্যাটিং লাইনআপ
বেশ শক্তিশালী।
ওপেনিংয়ে রয়েছেন মুরলি
বিজয় ও শিখর ধাওয়ান। এরপর
একে একে চেতেশ্বর পূজারা,
অজিঙ্কা রাহানে ও
কোহলি। একাদশে থাকতে
পারেন রোহিত শর্মাও।
দীর্ঘ দুই বছর পর ভারতের টেস্ট
দলে ফিরেছেন স্পিনার
হরভজন সিং। ভারতের স্পিন
আক্রমণ সামলাবেন তিনি।
তার সঙ্গে থাকবেন আরেক
স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন।
ভারত তিন স্পিনার নিয়ে
খেললে একাদশে কর্ণ
শর্মাকেও দেখা যেতে
পারে। পেস বোলিংয়ের
দায়িত্বে থাকবেন উমেশ
যাদব, ইশান্ত শর্মা, বরুণ
অ্যারনরা।
দুই দলের যে অবস্থা তাতে
মনে হচ্ছে জমজমাট এক
ক্রিকেট ম্যাচ দেখার
অপেক্ষায় ফতুল্লার খান
সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট
স্টেডিয়ামের দর্শকরা।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ