সাকিবের জরিমানা

ঢাকা ডায়নামাইটসের এখন সবচেয়ে প্রিয় পাত্র সাকিব আল হাসান। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার দারুণ নেতৃত্বগুণে ঢাকা ডায়নামাইটসকে বিপিএলের ফাইনালে তুলেছেন।

গত আসরে বিপিএলে প্রথমবারের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজি কেনে ঢাকা। কিন্তু শিরোপার স্বপ্ন পূরণ হয়নি। এবার সাকিবকে আগেভাগেই দলে নেয় ঢাকা ডায়নামাইটস। ফ্র্যাঞ্চাইজির সকল চাওয়া-পাওয়াও পূরণ করছেন তিনি। বল-ব্যাট হাতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, পাশাপাশি দলকে দিচ্ছেন কাঙ্খিত সাফল্য।

মঙ্গলবার প্রথম কোয়ালিফায়ারেও সাকিব ব্যাট হাতে ১৮ ও বল হাতে ১ উইকেট নিয়েছেন। কিন্তু সাকিবের মাঠের আচরণ ছিল ঔদ্ধত। খুলনা টাইটান্সের ইনিংসের পঞ্চম বলে আবু জায়েদ রাহী ফ্লেচারের এলবিডাব্লিউর আবেদন করেন। কিন্তু পাকিস্তানের আম্পায়ার খালিদ মাহমুদ রাহীর আবেদনে সাড়া দেননি। প্রথমে রাহী ক্ষোভ প্রকাশ করে আম্পায়ারকে গালি দিয়ে বসেন!

কভার থেকে দৌড়ে এসে সাকিবও একই সুরে সুর মেলান। দুজন মিলে আম্পারকে ‘ধুয়ে’ দেন। রাহীকে ওভারের শেষ বল করার জন্য আন্দ্রে রাসেল টেনে নিয়ে গেলেও সাকিব আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক চালিয়ে যান। আক্রমণাত্মক হয়ে হাত দিয়ে আম্পায়ারকে বুদ্ধি খাটানোর ইঙ্গিতও দেন ঢাকার অধিনায়ক!

ওই রেশ পরবর্তী ওভার পর্যন্ত টেনে নেন সাকিব। মাঝের সময়ে আম্পায়ারকে আঙুল তুলে কথা শোনান সাকিব। খালিদ মাহমুদ আঙুল তুলে সাকিবকে সতর্ক করলেও তাকে থামানো যায়নি। পরবর্তীতে কুমার সাঙ্গাকারা ও ডোয়াইন ব্রাভোকে আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়।

ওই ঘটনার পর তরুণ হাসানুজ্জামানের আউটের পরও ঔদ্ধত আচরণ করেন সাকিব। খুলনার ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পর ক্রিজে দাঁড়িয়ে থাকলে কথা শুনিয়ে সাকিব তাকে মাঠ ছাড়তে বলেন। ঢাকার মেহেদী মারুফ তাকে সান্তনা দেওয়ার জন্য গেলে সাকিবও এগিয়ে গিয়ে আরো কথা শুনিয়ে আসেন!

ম্যাচ শেষে আম্পায়াররা সাকিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে ম্যাচ রেফারী রকিবুল হাসান সাকিবের ম্যাচ ফির ২০ শতাংশ জরিমানা করেন। তবে রাহীর বিরুদ্ধে আম্পায়াররা রিপোর্ট না করায় কোনো শাস্তি হয়নি ঢাকার পেসারের।

তবে জানা গেছে, ম্যাচ চলাকালীন সময়ে দুই আম্পায়ারের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন আবু জায়েদ রাহী।

%d bloggers like this: