সতীর্থদের জন্য ওয়ানডে অধিনায়কের যে বার্তা

দীর্ঘদিন পর মিরপুরে গড়াচ্ছে সাদা বলের ক্রিকেট। ব্যাট-বলের প্রতিযোগিতায় মেতে উঠবেন তামিম, মাহমুদউল্লাহ ও নাজমুলের একাদশ। জাতীয় দল ও এইচপির ক্রিকেটারদের নিয়ে রোববার (১১ অক্টোবর) থেকে শুরু হচ্ছে তিন দলের ‘বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ’।

প্রতিযোগিতায় নিজ দলের অধিনায়ক হলেও তামিমের দায়িত্ব আরো বড়, বিস্তৃত। জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক হওয়ার কারণে অন্য খেলোয়াড়দের দিকেও নজর রাখতে হচ্ছে দেশসেরা ওপেনারকে। প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হলেও জাতীয় দলের বাইরের ক্রিকেটারদের জন্য বড় সুযোগ দেখছেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম।

দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহর মতে, দেশের অন্যতম সেরা ৪৫ ক্রিকেটার টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করছে। এখানে ভালো করতে পারলে ভবিষ্যতে বড় মঞ্চে ভালো করার আত্মবিশ্বাস পাওয়া যাবে। ওয়ানডে অধিনায়কও টুর্নামেন্টকে ঘিরে বড় পরিসরে চিন্তা করছেন। বিশেষ করে যারা জাতীয় দলের বাইরে আছেন তাদের জন্য এ টুর্নামেন্টে বড় সুযোগ দেখছেন তামিম।

‘আসলে শুধু ক্রিকেট ফিরে আসছে এই চিন্তা না করে, অনেক কিছু আমরা ব্যক্তিগতভাবে চিন্তা করতে পারি। কেউ যদি ভালো ব্যাটিং করে, ভালো একটি বোলিং পারফরম্যান্স করে। তার জন্য জাতীয় দলের দরজা খুলে যেতে পারে। এমন কোনো তরুণ খেলোয়াড় যদি থাকে, তাদের নিয়ে আমরা চিন্তা করতে পারি। এই সুযোগ সবার জন্য। এই টুর্নামেন্ট হচ্ছে পারফর্ম করে ভালো করে নিজের জায়গাটা তৈরি করে নেওয়ার।’– সতীর্থদের এমন বার্তা দিয়েছেন তামিম।

কিছুদিন আগে জার্মানির আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ডয়েচে ভেলের লাইভে যুক্ত হয়ে তামিম জানিয়েছেন, আগামী দুই বছরের জন্য ২৫ থেকে ৩০ জনের একটি স্কোয়াড চান তিনি। যাদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলিয়ে ২০২৩ বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত করা হবে। ওয়ানডে অধিনায়ক দীর্ঘমেয়াদি চিন্তায় এগিয়ে যাচ্ছেন। তিন দলের এ টুর্নামেন্ট থেকেই হয়তো সেই পথে হাঁটবেন ওয়ানডে অধিনায়ক।

মাহমুদউল্লাহ একাদশ: মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, লিটন দাস, মুমিনুল হক, মাহমুদুল হাসান, নুরুল হাসান সোহান, সাব্বির রহমান, ইমরুল কায়েস, হাসান মাহমুদ, এবাদত হোসেন, রুবেল মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, মেহেদী হাসান মিরাজ, রাকিবুল হাসান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

স্ট্যান্ডবাই: আবু হায়দার রনি, সানজামুল ইসলাম ও হাসান মুরাদ।

নাজমুল একাদশ: নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, সাইফ হাসান, আফিফ হোসেন, মুশফিকুর রহিম, তৌহিদ হৃদয়, ইরফান শুক্কুর, পারভেজ হোসেন ঈমন, তাসকিন আহমেদ, আল আমিন হোসেন, আবু জায়েদ রাহী, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, নাঈম হাসান, নাসুম আহমেদ, রিশাদ হোসেন।

স্ট্যান্ড বাই: সুমন খান, সাদমান ইসলাম ও তানভীর ইসলাম।

তামিম একাদশ: তামিম ইকবাল ( অধিনায়ক), তানজিদ হাসান তামিম, মোসাদ্দেক হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, শাহদাত হোসেন, ইয়াসির আলী, আকবর আলী, এনামুল হক বিজয়, সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, খালেদ আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, তাইজুল ইসলাম, মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি।

স্ট্যান্ডবাই: শফিকুল ইসলাম, মাহিদুল অঙ্কন ও মেহেদী হাসান রানা।

%d bloggers like this: