বার্সেলোনার নতুন রেকর্ড

সম্প্রতি বার্সেলোনা আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলছিল। টিকিটাকা ফুটবলের কারিগরদের পায়ে বেশ কিছুদিন টিকিটাকা দেখা যাচ্ছিল না। গত মৌসুমেও বার্সেলোনার চেয়ে বেশি বল নিজেদের দখলে রাখা যেকোনো দলের জন্য ছিল অসম্ভব। কিন্তু চলতি মৌসুমে বেশ কয়েক ম্যাচে বার্সেলোনার চেয়ে প্রতিপক্ষের বল দখলের রেকর্ড ছিল বেশি। স্প্যানিশ লা-লিগায় সর্বশেষ ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তারা ১-১ গোলে ড্র করে। ওই ম্যাচের পর বার্সেলোনার ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে বলেছিলেন, ‘আমরা ফের নিজেদের স্টাইলে খেলবো। আগের মতো খেললে আমরা আবার অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠবো।’ পিকের কথার প্রতিফলন দেখা গেলো  চ্যাম্পিয়ন্স লীগে। জার্মানির ক্লাব বরুশিয়া মুনশেনগ্লাডবাখকে তারা হারিয়েছে ৪-০ গোলে। এই ম্যাচে ন্যু ক্যাম্পে বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের পায়ে বল ছিল ৭২.৪ শতাংশ। এদিন আদি টিকিটাকা ফেরে তাদের পায়ে। ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে এদিন বার্সেলোনা পাসের নতুন রেকর্ড গড়ে। মুনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষের ম্যাচে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা দেয় ৯৯৩ পাস। ২০০৩-০৪ মৌসুম থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের রেকর্ড ও পরিসংখ্যান রাখা শুরু করেছে ইউয়েফা। তখন এ পর্যন্ত কোনো ম্যাচে এক দলের সর্বোচ্চ পাস দেয়ার ঘটনা এটি। এদিন মিডফিল্ডার সার্জিও বুসকেটস খেলেননি। মাঝমাঠে ছিলেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা ও আন্দ্রে গোমেজ। তারা দু’জন মিলে দেন ২৪৬ পাস। আর বার্সেলোনার হয়ে সর্বোচ্চ ২৪৬ পাস দেন আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার হাভিয়ের মাসচেরানো।

%d bloggers like this: