Home > রাজনীতি > প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবে বিএনপি

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবে বিএনপি

ভারতে কী ধরনের চুক্তি হয়েছে তা জনগণকে জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবে বিএনপি।

শনিবার রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে স্থায়ী কমিটির বৈঠকের বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘ভারতে প্রধানমন্ত্রী যে চুক্তিগুলো সম্পাদন করে এসেছেন সেই চুক্তিগুলো অবিলম্বে দেশবাসীর কাছে প্রকাশ করার জন্য আহ্বান জানানো হচ্ছে। আজকে আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি দেব। তথ্যগুলো জানার জন্য যে, কী ধরনের চুক্তি হয়েছে।’

একই সঙ্গে তথ্য অধিকার যে আইন আছে, সেই আইনকে সামনে নিয়ে তথ্য কমিশনের কাছেও চিঠি দেয়া হবে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, এ চুক্তিগুলো সম্পর্কে দেশবাসীর মধ্যে অনেক জিজ্ঞাসা আছে। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বে প্রশ্ন জড়িত হয়েছে।’

‘খালেদা জিয়া তেমন অসুস্থ নন যে, তাকে বিদেশে নিতে হবে’- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘দেশনেত্রীর শারীরিক অবস্থা কেমন আছে- সে সম্পর্কে বিবৃতি দেয়ার অধিকার উনার নেই। কারণ উনি কি ডাক্তার? উনি ডাক্তার নন, তিনি রাজনৈতিক দৃষ্টিকোন থেকে এটা বলছেন।’

ওবায়দুল কাদের বক্তব্যে বিস্ময় প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘একথা বলায় আমরা একেবারে বিস্মিত হয়েছি। উনি যখন অসুস্থ হয়েছেন, তাকে আমরা হাসপাতালে দেখতে গেছি। তিনি বিদেশে গেছেন আমরা তার আশু রোগমুক্তি কামনায় দোয়া করেছি।’

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য সম্পর্কে বিএসএমএমইউ‘র পরিচালকের বিবৃতি ‘অসত্য’ উল্লেখ করে অবিলম্বে তার স্বাস্থ্যের সঠিক তথ্য জনসমক্ষে প্রকাশের দাবি জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সাদেক হোসেন খোকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সভায় তার আশু রোগ মুক্তির জন্য দোয়া চেয়েছি। বিএনপির নেতা-কর্মীসহ দেশবাসীকে তার জন্য দোয়া করার আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে অসুস্থ স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়া ও স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর সেনানী শাহজাহান সিরাজের আশু রোগমুক্তি কামনা করছি।’

রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের শরণার্থীদের স্থানান্তরের বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে বাংলাদেশের নীতির বিরোধী।’

এদিকে আওয়ামী লীগের শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা মনে করি যে, এটা (শুদ্ধি অভিযান) মূল দুর্নীতিকে অর্থাৎ জাতীয় দুর্নীতিকে আড়াল করার জন্য। এই ছোটখাটো দুর্নীতিগুলোকে সামনে নিয়ে এটাকে আড়াল করা হচ্ছে। ‘

বৈঠকে মহাসচিব ছাড়া খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ