Home > রাজনীতি > হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ৫ জুলাই

হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ৫ জুলাই

নিজস্ব প্রতিবেদক: সারা দেশে হরতাল-অবরোধের সময় ৪২ জন মারা যাওয়ার ঘটনায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে হত্যা ও রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৫ জুলাই দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম খুরশীদ আলম এ আদেশ দেন।

ঢাকার অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার আনিসুর রহমান এ বিষয়ে এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মামলার অপর আসামিরা হলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এমাজউদ্দীন আহমদ, তৎকালীন ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়া।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। ওই দিন আদালত গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতে আইনজীবীরা কারাগারে

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে প্রবেশ করেছেন তার আইনজীবীরা। আইনজীবীদের মধ্যে অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মাদ আলী, সানাউল্লা মিয়া ও অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার কারাগারে প্রবেশ করেছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টা ৫ মিনিটে তারা পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দীন রোডের কারাগারে প্রবেশ করেন বলে নিশ্চিত করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন পাওয়ার পর প্রথমবারের মত খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তাঁর সঙ্গে দেখা করেতে গেলেন।

বেগম জিয়ার মিডিয়া উইং জানান, আইনজীবীরা দুর্নীতির মামলাসহ অন্যান্য মামলা নিয়ে নেত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানা গেছে। এদিকে মানহানির ২ মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকরের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এদিকে বহুলালোচিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। একই সাথে আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আপিল নিষ্পত্তিরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আপিল বিভাগ বিএনপি নেত্রীর জামিন বহাল রাখলেও এখনই খালেদা জিয়ার মুক্তি পাওয়া সহজ হবে না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে তার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বুধবার (১৬ মে) দুপুরে বলেন, সরকার তো সব সময় বাধা দেয়। এখন তার বিরুদ্ধে অন্য যেসব মামলা আছে সেগুলোতে দ্রুত হাইকোর্ট থেকে জামিন নেওয়ার চেষ্টা করবো। আইনি প্রক্রিয়ায় সব বাধা দূর করা হবে।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকা, কুমিল্লা ও নড়াইলে বিচারাধীন আরও ছয় মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় দু’টি, কুমিল্লায় তিনটি ও নড়াইলে একটি মামলা রয়েছে।

জয়নুল আবেদীন জানান, ঢাকার মামলা দুটি শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার (১৭ মে) দিন ধার্য করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বুধবার (১৬ মে) সাংবাদিকদের বলেন, আপিল বিভাগ খালেদা জিয়ার আপিল নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন। এখন আপিল শুনানির জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া নিম্ন আদালতে এই মামলার বিচার নয় বছর ঝুলিয়ে রেখেছিলেন। আপিল বিভাগের এ আদেশের ফলে এখানে আর বিচারকে তিনি বিলম্বিত করতে পারবেন না বলে আশা করা যায়।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কয়টি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে, কয়টি মামলায় জামিন নিতে হবে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাহবুবে আলম বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা এ তথ্য দিতে পারবেন।

তবে পরে তিনি আরো বলেন, সচরাচর কোনো আসামির যদি একাধিক মামলা থাকে, তাহলে সেসব মামলায় জামিন না পাওয়া গেলে মুক্তি পাওয়া যায় না।

এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও আইনজীবী মওদুদ আহমদ বলেন, খালেদার জামিনের ব্যাপারে কিছুটা বাধা আছে। যে মামলাগুলো আছে সেগুলোতে জামিন নিতে হবে। এখন দ্রুত চেষ্টা করবো আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে। তার পর তিনি আমাদের মাঝে মুক্ত হয়ে আসবেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ