Home > রাজনীতি > ঈদে মহাসড়কে কোনো দুর্ভোগ থাকবে না: ওবায়দুল

ঈদে মহাসড়কে কোনো দুর্ভোগ থাকবে না: ওবায়দুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: সড়ক পরিবহন ও
সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
বলেছেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম
মহাসড়কের চারলেন প্রকল্পের
কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এ
মহাসড়কের ১৯২
কিলোমিটারের মধ্যে ১৪০
কিলোমিটারের কাজ শেষ
হয়েছে। ঢাকা-জয়দেবপুর
চারলেনের কাজও শেষ
পর্যায়ে। আগামী ঈদে এসব
মহাসড়কে কোনো দুর্ভোগ ও
ভোগান্তি থাকবে না।
রবিবার জাতীয় সংসদে ৩০০
বিধিতে দেওয়া বিবৃতিতে
তিনি এ সব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, ঈদকে সামনে
রেখে সোমবার সব স্টেক-
হোল্ডারদের নিয়ে একটি
সভা করবে যোগাযোগ
মন্ত্রণালয়। এ দিন ঈদে ঘরমুখো
মানুষের জন্য নেওয়া পদক্ষেপ
সম্পর্কে অবহিত করা হবে বলে
জানান তিনি।
তিনি বলেন, আসন্ন ঈদে
ঘরমুখো মানুষের নিরাপদে
বাড়ি ফেরা, ঢাকা
মহানগরীর প্রবেশ এবং
বহির্গমন পয়েন্টগুলো যানজট
মুক্ত রাখা, মহাসড়কে যানজট
মোকাবেলা, সড়ক
নিরাপত্তাসহ অন্যান্য বিষয়ে
আমরা সক্রিয় রয়েছি।
আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ
নেতা বলেন, দেশব্যাপী সড়ক
ও জনপথ বিভাগের
প্রকৌশলীদের প্রস্তুত রাখা
হয়েছে। এখন দেশব্যাপী
মহাসড়কগুলো যান চলাচলের
উপযোগ রয়েছে।
রাজধানীর যানজট প্রসঙ্গ তুলে
ওবায়দুল কাদের বলেন, যানজট
নগর জীবনের সবচেয়ে বড়
বিড়ম্বনার নাম। এটা আমার
একার পক্ষে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব
নয়। এতে অনেকগুলো
মন্ত্রণালয়ের সমন্বয় দরকার।
সবার সমন্বিত পদক্ষেপের মধ্য
দিয়ে আমরা আশা করি
স্বস্তি দিতে পারবো।
সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনার কথা
তুলে তিনি বলেন, সড়ক-
মহাসড়কে এখনো ঝরছে তাজা
প্রাণ। ইতোমধ্যে, ১৪৪টি
দুর্ঘটনাপ্রবণ স্থান চিহ্নিত
করে সড়ক প্রসস্তকরণের কাজ
এগিয়ে চলছে।
মেট্রোরেল সম্পর্কে মন্ত্রী
বলেন, নতুন প্রজন্মের
যোগাযোগের নেটওয়ার্ক
মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজও
এগিয়ে চলছে। আগামী
ডিসেম্বরের মধ্যে ধাপে
ধাপে ৮টি টেন্ডার আহ্বান
করা হবে। এরপর আগামী
ফেব্রুয়ারি মাসে
মেট্রোরেলের কাজ শুরু হবে।
প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে
যোগাযোগ উন্নয়ন প্রসঙ্গে
পরিবহনমন্ত্রী বলেন,
মধ্যমআয়ের দেশে উন্নীত
হওয়ার যে লক্ষ্য নিয়ে আমরা
কাজ করছি, তা সফল করতে
চাই। প্রতিবেশী দেশগুলোর
সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ
সম্পর্ক অতীতের যে কোনো
সময়ের চেয়ে এখন অনেক
বেশি সুদৃঢ়। আঞ্চলিক ও
উপআঞ্চলিক উদ্যোগগুলোর
প্রতি আমাদের সরকারের
রয়েছে সুদৃঢ় আস্থা ও সমর্থন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ