Home > রাজনীতি > ‘মানুষ ভোট দিতে পারলে আ.লীগকে খুঁজে পাওয়া যাবে না’

‘মানুষ ভোট দিতে পারলে আ.লীগকে খুঁজে পাওয়া যাবে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক : মানুষ ভোট দিতে পারলে আওয়ামী লীগকে আর খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

শনিবার সকালে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে লেবার পার্টি আয়োজিত ‘প্রতিহিংসার রজনীতি : জাতীয় নির্বাচন ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের উদ্দেশে মওদুদ আহমদ বলেন, আপনারা চান খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে নির্বাচন করে ক্ষমতা দখল করতে। কিন্তু এ সুযোগ দেশের মানুষ আর আপনাদের দেবে না। জনগণকে ভোট দেওয়ার সুযোগ দিন, তাহলে দেখবেন আপনাদের কী অবস্থা হয়। মানুষ ভোট দিতে পারলে আওয়ামী লীগকে আর খুঁজে পাওয়া যাবে না। বিএনপিকে ভোট দিয়ে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাবে।’

তিনি আরো বলেন, আপনারা মনে করেছেন, বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচন করবেন? কিন্তু সে আশা কখনো পুরণ হবে না। বেগম জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না হতে দেওয়া হবে না।

প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে মওদুদ আহমদ বলেন, আপনারা সরকারি খরচে নৌকায় ভোট চাইবেন আর আমাদের নেত্রীকে কারাগারে রাখবেন, তা হবে না। আপনি সরকারি খরচে নৌকার প্রচারণা চালাবেন আর আমাদের কোনো সুযোগ দেবেন না। সভা-সমাবেশে গিয়ে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেবেন। নির্বাচন আইনে আছে, তফসিল ঘোষণার পর কোনো রাজনৈতিক দল ও নেতা কোনো প্রতিশ্রুতি দিতে পারবে না। শেখ হাসিনা এখন জনসভা করে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। এটি জনগণের সাথে প্রতারণা ছাড়া আর কিছু না।

বিএনপির এ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরেকটু সংযত হলে দেশকে আরো এগিয়ে নেওয়া যেত। দেশের গণতন্ত্রকে সুসংহত করা যেত। তার সামনে সুযোগ ছিলে বাকশাল কায়েমের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের কপালে যে কালিমা লেপন হয়েছে তা মুছে ফেলার। কিন্তু তিনি সেটা না করে করলেন উল্টোটা। তিনি চাইলে পারতেন মানুষের ভোটের অধিকার, গণতন্ত্র সুসংহত করতে। কিন্তু শেখ হাসিনা সেটা না করে করলেন একদলীয় শাসন কায়েম।

তিনি আরো বলেন, সরকার ক্ষমতায় এসে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা পুরোপুরি ধ্বংস করে দিয়েছে। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে ৩ মাসের মাঝে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে দলীয় ভিসি নিয়োগ করেছে। প্রক্টর, হল প্রোভোস্ট, শিক্ষক নিয়োগ করে শিক্ষাব্যবস্থায় দলীয়করণ করেছে। প্রশ্নপত্র ফাঁস ও নকলের প্রচলন আবারও ফিরিয়ে এনেছে।

মওদুদ আহমদ বলেন, শিক্ষাব্যবস্থায় এমন বেহাল দশার কারণে অন্য কোনো দেশ হলে সরকার পদত্যাগ করত। কিন্তু বর্তমান সরকার নির্লজ্জের মতো বলে, অতীতেও এমন হয়েছে। কিন্তু এটি মিথ্যা কথা। আওয়ামী লীগ আমলেই প্রশ্নফাঁস ও নকলের প্রচলন হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী ভালো মানুষ, কিন্তু তিনি ব্যর্থ। তার দলের লোকেরাও সংসদে তার পদত্যাগ দাবি করেছেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পরাজিত করতে কোনো স্লোগান দরকার হবে না। খালেদা জিয়া আমাদের সাথে থাকবেন, আর স্লোগান হবে ‘৭০ টাকা দরে চাল খাব না, নৌকায় ভোট দেব না’, ‘১৫০ টাকায় পেঁয়াজ খাব না, নৌকায় ভোট দেব না’।

লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- ব্যারিস্টার মীর নাসির, বরকত উল্লাহ বুলু, নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ