Home > রাজনীতি > প্রধানমন্ত্রী মানবতার পরিচয় দিয়েছেন : হানিফ

প্রধানমন্ত্রী মানবতার পরিচয় দিয়েছেন : হানিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার পরিচয় দিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বমাতার বুক পেতে দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে দুর্গোৎসব উপলক্ষে মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন, এই বাংলাদেশ হবে সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের জন্য সুখী-সমৃদ্ধ একটি দেশ। এখানে ধর্ম-বর্ণ নিয়ে হানাহানি থাকবে না। সেটাই ছিল আমাদের লক্ষ্য। কিন্তু মাঝখানে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশে একটি অশুভ শক্তির আবির্ভাব ঘটে। এরপর এদের বিরুদ্ধে আমাদের অনেক লড়াই-সংগ্রাম করতে হয়েছে।

বিএনপির দিকে ইঙ্গিত করে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আমাদের দেশে একটি দল আছে। যারা অশুভ শক্তির জোট করেছে। একাত্তরে যারা আমাদের মা-বোনের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে, এরা সেই যুদ্ধাপরাধী দলের সাথে জোট করে বারবার বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করেছে। তারা এখনো তৎপর। এরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে চায় না। এদের প্রভু মৌলবাদী ও জঙ্গিগোষ্ঠীর হোতা পাকিস্তান। এরা পাকিস্তানের নির্দেশেই সব সময় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে চায়।

বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ওখানে শুধু মুসলমাদের ওপর নয়, হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপরও অমানুষিক নির্যাতন করছে। কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বমায়ের মতো তাদের বুকে আগলে রেখেছেন। আমাদের দেশ নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ। এই ছোট্ট দেশে ১৬ কোটি মানুষের খাওয়া-পড়ানো অনেক কঠিন কাজ। তারপরও প্রধানমন্ত্রী এসব মানুষের ওপর নির্যাতনের কারণে তাদের আশ্রয় দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী এই সমস্ত নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষকে আশ্রয় দিয়ে গোটা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছেন। সারা বিশ্বের মানুষ প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করেছেন। তিনি এসব মানুষকে আশ্রয় দিয়ে মানবতার পরিচয় দিয়েছেন। সেই কারণে তিনি মানবতার জননী বা মানবতার মাতা হিসেবে ব্রিটিশ মিডিয়ায় অভিহিত হয়েছেন। কারণ, তিনি মায়ের মমতা দিয়ে অসহায়-নিপীড়িত-নির্যাতিত মানুষকে বুকে টেনে নিয়ে তাদের আশ্রয় ও অন্নের ব্যবস্থা করেছেন। আর আমাদের সেই অশুভ শক্তির দল বিএনপি-জামায়াত, এরা এখনো সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে যাচ্ছে।

বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলো প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক ডেকেছে এবং নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমেই মিয়ানমারের সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গা সমস্যার দ্রুত সমাধানের ব্যাপারে বৈঠক ডেকেছে বলে দাবি করেন মাহবুব উল আলম হানিফ।

দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আজকে জাতির সামনে পরিষ্কার হয়েছে- গত নয়টি বছর প্রধানমন্ত্রী নিরলস পরিশ্রম করে তার দক্ষতা, বিচক্ষণতা, প্রজ্ঞা এবং মেধা দিয়ে বাংলাদেশকে উচ্চতর পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। বাংলাদেশকে নিয়ে এখন বিশ্ববাসী আশা প্রকাশ করছে। বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হবে বলে তারা আশা প্রকাশ করছেন। তাই শেখ হাসিনা যতদিন এই বাংলাদেশের ক্ষমতায় থাকবেন ততদিন বাংলাদেশের মানুষ এগিয়ে যাবে অর্থনৈতিক মুক্তির পথে এবং ততদিন দেশ এগিয়ে যাবে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মনিন্দ্র কুমার নাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার পাল প্রমুখ।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ