Home > রাজনীতি > ‘প্রধানমন্ত্রীকে বলব বিএনপির সঙ্গে বৈঠক নয়’

‘প্রধানমন্ত্রীকে বলব বিএনপির সঙ্গে বৈঠক নয়’

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী যদি বিএনপির সঙ্গে আলোচনায় বসতেও চান; আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলবেন, যিনি জন্মতারিখ পরিবর্তন করে ১৫ আগস্ট কেক কাটেন, তার সঙ্গে কোনো আলোচনা হতে পারে না।

বিএনপির সঙ্গে বৈঠকে বসতে আওয়ামী লীগ এত দৈন্যদশায় পড়েনি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শুক্রবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সংলাপের প্রয়োজন মির্জা ফখরুল ইসলামের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপ প্রয়োজন, সরকারের সঙ্গে নয়। কারণ নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। সরকার তার রুটিন কাজ করবে।’

তিনি বলেন, ‘১৫ আগস্ট জন্মদিনের তারিখ পরিবর্তন করে কেক কাটবেন আর তার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলোচনায় বসবেন? প্রধানমন্ত্রী যদি আলোচনায় বসতেও চান, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলবেন, যিনি জন্মতারিখ পরিবর্তন করে ১৫ আগস্ট কেক কাটেন, তার সঙ্গে কোনো বিষয়ে আলোচনা হতে পারে না। আওয়ামী লীগ এত দৈন্যদশায় পড়েনি যে তাদের সঙ্গে বৈঠক করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির কোনো বক্তব্য থাকলে তা নির্বাচন কমিশনের কাছে করুন। নির্বাচন কমিশন প্রয়োজন মনে করলে তা গ্রহণ করতে পারে।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘নানামুখী ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ১৫ আগস্ট ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের ৩০০ মিটারের মধ্যে যে জঙ্গি তৎপরতা, তা বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের অংশ। এর সঙ্গে বিএনপি জড়িত। কারণ জঙ্গি সাইফুল ছাত্র শিবিরের কর্মী, তার বাবা জামায়াতে ইসলামের কর্মী। আর জামায়াতের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হলো বিএনপি। জামায়াত-বিএনপির পৃষ্ঠপোষকতা শিবিরের নেতাদের খোলস পাল্টিয়ে নব্য জেএমবি বানিয়েছে। তারা সারাদেশে হামলা চালিয়ে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করতে চায়। তাই সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রীদের সাক্ষাতের বিষয়ে বিএনপি নেতাদের সমালোচনার জবাব দিয়ে বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও অন্য মন্ত্রীরা দেখা করবেন এটাই স্বাভাবিক, বরং দেখা না করাটাই হচ্ছে অস্বাভাবিক। বিএনপির মহাসচিব এখানে ষড়যন্ত্রের গন্ধ খুঁজছেন। তিনি পরিণত বয়সে নাবালকের মতো বক্তব্য দিচ্ছেন। মহাসচিবের দায়িত্বে থেকে পরিণত বয়সে বালকের মতো বক্তব্য দেন, তাতে রাজনীতিবিদ হিসেবে আমি লজ্জিত হই। বিএনপিরও অনেকেরই লাগে।’

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ