Home > রাজনীতি > খালেদা-মোদি একান্ত বৈঠক, আলোচনায় গণতন্ত

খালেদা-মোদি একান্ত বৈঠক, আলোচনায় গণতন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: বাংলাদেশে
গণতন্ত্রের অনুপস্থিতি এবং
জনগণের বাকস্বাধীনতা ও
ভোটাধিকার নিয়ে
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র
মোদির সঙ্গে বিএনপি
চেয়ারপারসন খালেদা
জিয়ার কথা হয়েছে।
রবিবার বিকেল ৫টার দিকে
হোটেল সোনারগাঁওয়ে
অনুষ্ঠিত বৈঠকে শেষে
বিএনপির স্থায়ী কমিটির
সদস্য ড. আবদুল মঈন খান
সাংবাদিকদের এ কথা
বলেন।
এর আগে বিকেল ৪টায় শুরু
হওয়া ৫০ মিনিটের বৈঠকের
এক পর্যায়ে নরেন্দ্র মোদি
এবং খালেদা জিয়া ১৫
মিনিট একান্তে বৈঠক করেন
বলেও জানান তিনি।
মঈন খান বলেন, ‘আমরা দুই
দেশের পারস্পরিক সম্পর্কের
প্রতিটি বিষয় উল্লেখ
করেছি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ
বিষয় হচ্ছে আজ
বাংলাদেশে গণতন্ত্রের
অনুপস্থিতি। বাংলাদেশে
যদি গণতন্ত্র না থাকে,
তাহলে কেবল বাংলাদেশ
নয়, সমগ্র দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের
জন্য অস্থির পরিবেশের সৃষ্টি
করতে পারে।’
তিনি বলেন, ‘আজ
বাংলাদেশে বিরোধী
দলের ওপর অত্যাচার, আমাদের
মহাসচিব, দলের স্থায়ী
কমিটির সদস্য থেকে শুরু করে
তৃণমূল পর্যায়ের হাজার
হাজার কর্মীদের অত্যাচার-
অনাচার করা হচ্ছে। এ
বিষয়গুলো গণতন্ত্রের
অনুপস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে
আপনাআপনি উঠে এসেছে।’
বিএনপির এ নেতা বলেন,
‘জনপ্রতিনিধিত্বহীন সরকার
দেশের উন্নয়নের যেসব কথা
বলছে তা অর্থহীন, যদি
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি না
থাকে। তাই জনগণের কল্যাণ,
কর্মসংস্থান, শিক্ষা,
অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এখন
গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর হচ্ছে বহুদলীয়
গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করা।
আমরা এ বিষয়টিকে গুরুত্ব
দিয়েছি।’
তিনি বলেন, ১৬ কোটি
মানুষের ভবিষ্যৎ উন্নয়ন এবং
বাংলাদেশ মধ্যম বা উচ্চ
আয়ের দেশ হতে হলে মানুষকে
কথা বলার, মানুষের ভোটের
অধিকার ফিরিয়ে দিতে
হবে।
বৈঠকে খালেদা জিয়ার
সঙ্গে অন্যদের মধ্যে ছিলেন
দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য
তরিকুল ইসলাম ও নজরুল ইসলাম
খান এবং চেয়ারপারসনের
উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান ও
সাবিহউদ্দিন আহমেদ।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ