ফখরুলের রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: পল্টন থানায়
দায়ের করা নাশকতার তিন
মামলায় বিএনপির
ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব
মির্জা ফখরুল ইসলাম
আলমগীরের রিমান্ড ও
জামিন আবেদন দুটোই
নামঞ্জুর করেছেন
আদালত। তাকে জেলগেটে
জিজ্ঞাসাবাদের
নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বুধবার সকালে আদালতে
হাজির করার পর তিন
মামলায় ফখরুলের ৩০
দিনের রিমান্ড চায়
পুলিশ। অন্যদিকে ১৬ মে
ফখরুলের আইনজীবীর করা
জামিন আবেদন শুনানির
জন্য আজকে দিন ধার্য
ছিল।
ফখরুলের পক্ষে তিন
মামলায় জামিনের
আবেদনের শুনানি করেন
আইনজীবী জয়নুল আবেদীন
মেজবাহ।
অন্যদিকে তিন মামলায় দশ
দিন করে মোট ত্রিশ
দিনের রিমান্ডের
আবেদন জানান
মামলাগুলোর তদন্ত
কর্মকর্তা পল্টন থানার
ওসি মোরশেদ আলম ও
শফিকুল ইসলাম।
শুনানি শেষে জামিন ও
রিমান্ডের আবেদন
নামঞ্জুর করেন আদালত।
একই সঙ্গে আগামী ২৩ মের
মধ্যে তাকে জেলগেটে
জিজ্ঞাসাবাদের
নির্দেশ দেন।
এর আগে সকাল ৮টায়
কাশিমপুর কারাগার
থেকে মির্জা ফখরুলকে
ঢাকার চিফ
মেট্রোপলিটন
ম্যাজিস্ট্রেট
(সিএমএম) আদালতে হাজির
করা হয়।
সিএমএম আদালতের
হাজখানার ভারপ্রাপ্ত
কর্মকর্তা (ওসি) মুরাদ
হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত
করে জানান, সকাল ১০টার
পরে তার শুনানি
অনুষ্ঠিত হবে।
মেট্রোপলিটন
ম্যাজিস্ট্রেট অশোক
কুমার দত্তের আদালতে
মির্জা ফখরুল ইসলাম
আলমগীরের আবেদনের
শুনানি হয়।
মির্জা ফখরুল ইসলাম
আলমগীরের আইনজীবী
জয়নুল আবেদীন মেজবাহ
জানান, চলতি বছরের
জানুয়ারি মাসে
রাজধানীর পল্টন থানায়
দায়ের করা ভাঙচুর,
অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার
তিনটি মামলার জামিন
আবেদনের শুনানির জন্য
বুধবার মির্জা ফখরুল
ইসলাম আলমগীরকে
আদালতে হাজির করা
হয়েছে।
১৬ মে মামলার জামিনের
জন্য আবেদন করেন
ফখরুলের আইনজীবী। ওই
আবেদনের শুনানির জন্য
বুধবার দিন ধার্য করেন
আদালত। এছাড়া আদালতে
হাজিরের পর তিন মামলায়
মির্জা ফখরুলের
বিরুদ্ধে ৩০ দিনের
রিমান্ড চায় পুলিশ।
অনির্দিষ্টকালের
অবরোধের প্রথম দিন গত ৬
জানুয়ারি জাতীয়
প্রেসক্লাবের সামনে
থেকে গ্রেপ্তার হন
মির্জা ফখরুল। বিএনপি-
জামায়াত জোটের
আন্দোলনের সময় সংঘটিত
নাশকতার ঘটনায় তার
বিরুদ্ধে অন্তত ৭৬টি
মামলা হয়েছে। পল্টন
থানার ওই তিনটি মামলায়ই
তিনি এজাহারভুক্ত
আসামি।

%d bloggers like this: