Home > জাতীয় > ‘মানুষের মধ্যে সরকারকে ঠকানোর বিষয়ে আগ্রহ বেশি’

‘মানুষের মধ্যে সরকারকে ঠকানোর বিষয়ে আগ্রহ বেশি’

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেছেন, মানুষের মধ্যে সরকারকে ঠকানোর বিষয়ে আগ্রহ বেশি। কারণ সরকার বেশিরভাগ সময় কর ফাঁকিবাজদের ধরতে পারে না। কিন্তু কর দেওয়া যে আমাদের দায়িত্ব সেটা আমরা বুঝতে চাই না। দেশের চার কোটি মানুষের আয়কর দেওয়া উচিত। কিন্তু মাত্র ২০-২২ লাখ মানুষ আয়কর রিটার্ন দেয়।

সোমবার রাজধানীর কাকরাইলের ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন আয়োজিত মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মিসেস সুরাইয়া হোসেন।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের দেশ যে উন্নয়ন হয়েছে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। ২০০৬ সালে আমাদের যে জাতীয় আয় ছিল এটি ২০১৮-২০১৯ সালে চারগুন বেড়েছে। জাতীয় বাজেট বাড়ছে। বর্তমানে মাথাপিছু আয় ১৯১৫ মার্কিন ডলার। এখন এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের। ৮ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি। আমরা যদি ৮ থেকে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারি, তাহলে দেশ অনেক এগিয়ে যাবে। আর দেশের উন্নতি হলে সবাই সুবিধা ভোগ করবে। আমাদের জিডিপি ২০০৬ সালের তুলনায় ৪ গুন বেড়েছে। ২০১৯ সালের তুলনায় ২০৩০ সালে আরো চারগুন বাড়বে।

তিনি বলেন, উন্নয়নের পরে যেটা প্রয়োজন সেটা হলো শান্তি-শৃঙ্খলা। অনেকে আছেন শান্তিতে থাকতে দেশের টাকা বিদেশে নিয়ে যায়। আমাদের দেশে শান্তি-শৃঙ্খলা ফিরে আসলে, মানুষ আর বিদেশ টাকা রাখবে না। এজন্য আমাদের আমাদের নৈতিকতা সমৃদ্ধ ও সৎ হতে হবে।

মোশাররফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশে ভারতের ১০ থেকে ১৫ লাখ, শ্রীলংকার ৫ লাখ, নেপাল ও ভিয়েতনামসহ বিভিন্ন দেশের মানুষ কাজ করছে। তারা আমাদের দেশ থেকে রেমিট্যান্স নিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশে বিদেশীদের বেতন অনেক বেশি। কারো বেতন ১০ লাখ টাকা হলে বেশিরভাগ সময় ব্যাংকে দেয় এক থেকে দুই লাখ টাকা। বাকিটা ক্যাশে দেয়। আমরা ব্যাংকের মাধ্যমে দেওয়া বেতনের ওপর কর নেই। কর ফাঁকি দেওয়ার এমন প্রবণতা অন্যান্য ক্ষেত্রেও দেখা যায়।

তিনি বলেন, মানুষের মধ্যে সরকারকে ঠকানোর বিষয়ে আগ্রহ বেশি। কারণ সরকার বেশিরভাগ সময় ধরতে পারে না। কিন্তু কর দেওয়া যে আমাদের দায়িত্ব সেটা আমরা বুঝতে চাই না। আমাদের দেশের জনসংখ্যা ও উন্নতির কথা বিবেচনা করলে ৪ কোটি মানুষের কাছ থেকে আয়কর পাওয়া উচিত। কিন্তু সেখানে ১ কোটি মানুষের কাছ থেকেও আয়কর পাই না। মাত্র ২০-২২ লাখ মানুষ আয়কর রিটার্ন দেয়।যদিও পরোক্ষভাবে সবাইকে ভ্যাট দিতে হয়। দেশের উন্নয়নের জন্য বেশি বেশি কর দিতে হবে। সরকারকে ভরন-পোষণ করার দায়িত্ব আমাদের। এদেশে অনেক টাকার মালিক হলেও কর দিতে চায় না। বাড়ির মালিক লাখ লাখ টাকা ভাড়া আদায় করলেও অনেকেরই ট্যাক্স ফাইল নেই। অনেক ভাড়াটিয়া আছেন ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা ভাড়া দেন কিন্তু কর দেয় না। তাদের দাবি ভাড়ায় থাকি আবার কর দেব কেন?

দুর্নীতি প্রসঙ্গে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, মানুষের দুর্নীতির প্রথম তীর সরকারি অফিসের দিকে। সর্বত্রই দুর্নীতি। আসলে প্রত্যেকটি মানুষের মধ্যে দুর্নীতি আছে। পণ্য আমদানিতে মিথ্যা ঘোষণা, বন্ডের সুবিধা নিয়ে কাপড় খোলা বাজারে বিক্রির প্রবণতা দেখা যায় ব্যবসায়ীদের। ধরতে গেলে আমদানি কমে যায়।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ