Home > জাতীয় > কালো টাকা সাদা করে বিনিয়োগের পক্ষে রওশন

কালো টাকা সাদা করে বিনিয়োগের পক্ষে রওশন

সংসদ প্রতিবেদক : বাজেটে কালো টাকা সাদা করে বিনিযোগ করার কথা জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ।

শনিবার সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

রওশন এরশাদ বলেন, ‘কালো টাকা সাদা করার বিষয় প্রত্যেক দেশেই আছে। আমাদের এখানে বড় বড় ব্যবসায়ীরা আছেন। তাদের এই সুযোগটা দিলে তারা এখানেই বিনিয়োগ করবেন। নইলে তারা টাকাগুলো বাইরে নিয়ে চলে যাবেন। কালো টাকা সাদা করে যদি এখানে বিনিয়োগ করে তাহলে সে সুযোগ করে দিবেন। কারণ এখানে ইন্ডাস্ট্রি করলে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।’

রওশন এরশাদ বলেন, রাজস্ব আদায় বাজেটের বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য অর্জনে সংস্কারের পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। বাজেটের ঘাটতি পূরণে ব্যাংক থেকে টাকা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু ব্যাংকে নগদ টাকা নেই। সেখান থেকে টাকা নিয়ে ঘাটতি পূরণ করলে বেসরকারি খাত বিনিয়োগের জন্য টাকা পাবে না। ফলে বিনিয়োগ নির্ভর কর্মসংস্থান করতে ঋণ প্রবাহে সমস্যা হবে।

তিনি বলেন, দেশে কর্মসংস্থান না হলে বিনিয়োগ হবে না, বৈষম্যও কমবে না। তাই ধনী-গরিবের বৈষম্য দূর করতে কর্মসংস্থানের জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিতে হবে।

টাকার অবমূল্যায়ন করা হলে মূল্যস্ফীতি বাড়বে ও দেশে অস্থিতিশীলতার সৃষ্টি করবে বলে মন্তব্য করে রওশন এরশাদ বলেন, বাজেটে গরিব-ধনীদের বৈষম্য যাতে হ্রাস পায় সেদিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখতে হবে। শিক্ষার মান উন্নয়ন করতে হবে।

তিনি বলেন, এডিপিতে প্রকল্পে খরচ বাড়ছে। এডিপিতে গৃহীত প্রকল্পগুলো ঠিকভাবে বাস্তবায়ন হতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

নারীদের জন্য পৃথক ব্যাংক দাবি করে বিরোধীদলীয় উপনেতা বলেন, নারী উদ্যোক্তার কথা অনেক শুনি। আসলে কিন্তু কোনো কাজ হয় না। বলা হয়েছিল একটি ব্যাংক দিয়ে দিতে। মহিলাদের জন্য একটি ব্যাংক দিয়ে দিতে। মহিলারা এখান থেকে ঋণ নিতে পারে। নিজেরা নিজেরা সেই টাকা দিয়ে উদ্যোগ নিয়ে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করতে পারেন নিজের জন্য।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে এটা করা হলে অনেক ভালো হয়। মেয়েদের জন্য একটা ব্যাংক করে দেন এবং সেটার ব্রাঞ্চ যদি জায়গায় করে দেন তাহলে নারী উদ্যোক্তা কিন্তু অনেক বেশি সৃষ্টি হবে। সুযোগ-সুবিধা পাবে এবং তারা সে টাকা নিয়ে বিনিয়োগ করে নিজে স্বাবলম্বী হবেন অন্যদের স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দিবেন।

বক্তব্যের শুরুতে তিনি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জন্য দোয়া চেয়ে বলেন, ‘উনি এখন অনেক বেশি অসুস্থ। আস্তে আস্তে কিছুটা উন্নতি হয়েছে। এখন কিছুটা ভালোর দিকে। কিন্তু দুর্বল রয়ে গেছেন। সেজন্য আমরা মানসিকভাবে অত্যন্ত বিপর্যস্ত। আমি আপনাদের সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করছি ওনার আরোগ্য লাভের জন্য। আপনারা সবাই মিলে ওনার জন্য দোয়া করবেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ