Home > জাতীয় > মাদক নির্মূলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার ঐক্যমত

মাদক নির্মূলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার ঐক্যমত

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : মাদক নির্মূলে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার ঐক্যমত পোষণ করেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি।

শুক্রবার বিকেলে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন, মাদক বন্ধসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক’ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে অত্যন্ত সোহার্দ্যপূর্ণ ও ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। মাদকের বিস্তার রোধে মিয়ানমার সীমান্তে ইয়াবাসহ মাদক কারখানা বন্ধ করতে রাজি হয়েছে। মাদক বন্ধে তারা বাংলাদেশের সহযোগিতাও কামনা করে। এককথায় মাদক নির্মূলে বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমার ঐক্যমত পোষণ করে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মিয়ানমার সীমান্তে ৪৯টি ইয়াবা কারাখানার সন্ধান পেয়েছি। সেগুলো বন্ধ করার জন্য তাদের অনুরোধ করা হয়েছে। প্রতিনিধি দলের প্রধান মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের এ বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন। তারা ইয়াবাসহ মাদক কারখানা বন্ধে মিয়ানমারের সঙ্গে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।’

বৈঠকে সীমান্ত হত্যা নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘তাদের সীমান্ত হত্যার বিষয়ে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে তারা বাংলাদেশের সঙ্গে মিলে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন। দুই দেশের সীমান্তে বর্ডার লিয়াজোঁ অফিস (বিএলও) নিয়ে কথা হয়েছে। আগের সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ীই এটি হবে। পাশাপাশি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকও চলবে ধারাবাহিকভাবে।’

শুক্রবার দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে মিয়ানমারের প্রতিনিধি দল সচিবালয়ে আসেন। এ সময় বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি তাদের ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। গার্ড অব অনার দিয়ে প্রতিনিধি দলটিকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এ সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রোহিঙ্গা ইস্যু, সীমান্ত হত্যা বন্ধ ও মাদকের বিস্তার রোধে মাদক আস্তানা নির্মূলসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে বৈঠক চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

বৈঠকে বাংলাদেশের ১৮ সদস্য প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং মিয়ানমারের ১৫ সদস্য প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন সে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লেফটেন্যান্ট জেনারেল কিয়াও সোয়ে। মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের মধ্যে সেদেশের স্বরাষ্ট্র সচিব, পররাষ্ট্র সচিব, পুলিশ প্রধানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিতি ছিলেন। বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে ফরিদ উদ্দিন আহম্মদসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দুই সচিব, আইজিপি ড. মো. জাভেদ পাটোয়ারিসহ মন্ত্রণালয় ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষকর্তারা বৈঠকে অংশ নেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ