Home > জাতীয় > ঢাবি ছাত্র নির্যাতনকারী ওসি হেলাল কারাগারে

ঢাবি ছাত্র নির্যাতনকারী ওসি হেলাল কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
জনতার বাণী,
ঢাকা: ঢাকা
বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি)
এক শিক্ষার্থীকে
নির্যাতনের ঘটনায়
সাজাপ্রাপ্ত খিলগাঁও
থানার সাবেক ওসি
হেলালউদ্দিনকে
কারাগারে পাঠানোর
নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
এর আগে তিনি আদালতে
আত্মসমর্পণ করে জামিনের
আবদন করেন।
রবিবার দুপুরে আদালতে
আত্মসমর্পণ করলে বিচারক
তার জামিন নামঞ্জুর করে
কারাগারে ‍পাঠানোর
নির্দেশ দেয়। তিনি এতদিন
পলাতক ছিলেন।
প্রমঙ্গত, ৪ বছর আগে ঢাকা
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র
আবদুল কাদেরকে থানায়
নিয়ে নির্যাতনের ঘটনায়
খিলগাঁও থানার তখনকার
ওসি হেলালউদ্দিনকে ৩
বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে
আদালত। ঢাকার প্রথম
অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর
হাকিম আলমগীর কবির ১৭
মে মামলার রায় ঘোষণা
করেন।
ওই ঘটনায় পুলিশ বাহিনী
থেকে বরখাস্ত হওয়া
হেলালকে ৩ বছরের
বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়ার
পাশাপাশি ১০ হাজার
টাকা জরিমানা করা
হয়েছে। জরিমানার টাকা
দিতে ব্যর্থ হলে তাকে
আরও ৩ মাস জেল খাটতে
হবে।
২০১১ সালের ১৬ জুলাই
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের
প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ
বিভাগের তৎকালীন ছাত্র
কাদেরকে আটকের পর
তাকে ছিনতাইকারী
হিসেবে দেখানোর জন্য
থানায় নিয়ে
স্বীকারোক্তি আদায়ের
চেষ্টা করেন ওসি
হেলালউদ্দিন। কিন্তু
স্বীকারোক্তি না পেয়ে
চাপাতি দিয়ে কাদেরের
পায়ে আঘাত করেন
হেলাল।
পুলিশের তদন্তে নির্দোষ
প্রমাণিত কাদের বর্তমানে
একজন সরকারি কর্মকর্তা।
বিসিএস দিয়ে তিনি
শিক্ষকতা করছেন লক্ষ্মীপুর
সরকারি মহিলা কলেজে।
রায়ের প্রতিক্রিয়ায়
তিনি বলেন, এতে আমি
খুশি। এতে প্রমাণ হলো যে
ঘটনাটি সাজানো ছিল।
ন্যায়বিচার পাবেন কিনা-
তা নিয়ে আগের দিন
শঙ্কায় থাকলেও রায়ের পর
তা কেটে গেছে বলে
জানান তিনি।
মামলার আসামি
হেলালউদ্দিন আদালতে
হাজির না হয়ে আইনজীবীর
মাধ্যমে রায় পেছানোর
আবেদন পাঠান। তার
আইনজীবী সাইদুর রহমান
মানিক সময়ের আবেদনে
বলেন, হেলাল পেটের
পীড়ায় আক্রান্ত। এ কারণে
তিনি আসতে পারেননি।
কিন্তু বক্তব্যের পক্ষে
কোনো নথি দাখিল করতে
না পারায় হেলালের
আবেদন নাকচ করে তাকে
পলাতক দেখিয়েই রায়
ঘোষণা করেন বিচারক।
রায়ের সময় কাদেরের
পক্ষে আদালতে উপস্থিত
ছিলেন তার আইনজীবী
গফফার হোসেন। মোট ১৩
জনের সাক্ষ্য নিয়ে
বিচারক ওই মামলার রায়
প্রদান করেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ