ভাষাসৈনিক সৈয়দ আফরোজ বখ্ত আর নেই

হবিগঞ্জের প্রিয়মুখ ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক অ্যাডভোকেট সৈয়দ আফরোজ বখ্ত (৮৫) আর নেই। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের ইনাতাবাদের বাসা থেকে চিকিৎসার জন্য সিলেট যাওয়ার পথে তিনি মারা যান (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন) । মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, এক মেয়েসহ অনেক গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

মরহুমের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকাল ৫টায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ও কমান্ড্যান্ট মানিক চৌধুরী পাঠাগার হবিগঞ্জ প্রাঙ্গণে এই ভাষাসৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা জানানো হয়।

সন্ধ্যা ৭টায় হবিগঞ্জ বার লাইব্রেরি প্রাঙ্গণে তাঁর জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। বৃহষ্পতিবার সকালে বানিয়াচং উপজেলা করচা গ্রামে জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে এ ভাষা সৈনিককে দাফন করা হবে।

তার মৃত্যুতে হবিগঞ্জের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিকসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ শোক প্রকাশ করেছেন।

জানা গেছে, ১৯৩৫ সালে জন্ম নেওয়া অ্যাডভোকেট সৈয়দ আফরোজ বখ্ত সুশিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে দেশসেবায় আত্মনিয়োগ করেন। ভূমিকা পালন করেন ভাষা আন্দোলনে। মহান মুক্তিযুদ্ধেও তার বিরাট অবদান রয়েছে। তিনি একজন ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। সাদা মনের এ মানুষটি মূলত ঢাকায় আইন পেশায় যুক্ত হন ১৯৬৬ সালে। আর ১৯৬৭ সালে হবিগঞ্জে এসে এ পেশায় কাজ শুরু করেন।

তারপর থেকে অতি সুনামের সঙ্গে স্থায়ীভাবে হবিগঞ্জে এ পেশায় কাজ করে আসছিলেন। এ হিসাবে ২০১৮ সালে আইন পেশায় তাঁর ৫০ বছর পূর্ণ হয়েছিল। এ পেশার ৫২ বছরে এসে তিনি মারা গেছেন।

সাবেক এমপি কেয়া চৌধুরী বলেন, ‘শৈশব থেকে পিতৃতুল্য সাদামনের এ বরেণ্য ব্যক্তিকে দেখে আসছি। যার মধ্যে কোনদিন দেখিনি লোভ-লালসা। তিনি আইন পেশায় থেকে তৃণমূল মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। যার বর্ণাঢ্য জীবন সম্পর্কে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে। আজ তিনি আমাদের মাঝে নেই। মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে।’

%d bloggers like this: