বাণিজ্য মেলায় ১৬২ প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করেছে এনবিআর

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতাদের কাছ থেকে মূল্য সংযোজন কর (মূসক/ভ্যাট) আদায় করে তা সরকারি কোষাগারে জমা না দেওয়ার অভিযোগে ১৬২ প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

বাণিজ্য মেলায় এক দিনের বিক্রি থেকে যে পরিমাণ রাজস্ব হয় তা পরের দিন মেলা প্রাঙ্গনে অবস্থিত সোনালী ব্যাংকের শাখার মাধ্যমে পরিশোধ করা এবং রাজস্ব পরিশোধের রশিদ এনবিআরকে দেখানোর বিধান রয়েছে। কিন্তু মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলা প্রায় শেষ হলেও ১৬২টি প্রতিষ্ঠান ভ্যাট পরিশোধে গড়িমসি করছে। এনবিআরের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র রাইজিংবিডিকে বিষয়টি জানিয়েছে।

এ বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান রাইজিংবিডিকে বলেন, বাণিজ্য মেলার সময় আরো চারদিন বৃদ্ধি পেয়েছে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট ফাঁকির বিষয় নিয়ে আমাদের কাস্টমস এক্সসাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেটের (পশ্চিম) কমিশনার সক্রিয়ভাবে কাজ করছেন। ইতিমধ্যে এনবিআরের পক্ষ থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক করা হয়েছে। রাজস্ব না দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মেলা প্রাঙ্গনে রাজস্ব দপ্তরে কাস্টমস, এক্সসাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট (পশ্চিম) এর ১১ কর্মকর্তা-কর্মচারী সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা এবং বিকেল ৪টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত পালাক্রমে উপস্থিত থেকে রাজস্ব আদায়ের কাজ করছেন।

২২তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় রাজস্ব আদায় কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে কাজ করছেন কাস্টমস এক্সসাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেটের (পশ্চিম) কমিশনার সহিদুল ইসলাম।

এ বিষয়ে এনবিআর সূত্র আরো জানায়, বাণিজ্য মেলায় ১৬২টি প্রতিষ্ঠান নিয়মিত বিক্রি করলেও কোনো রাজস্ব পরিশোধ করেনি। বাণিজ্য মেলার শেষ হওয়ার পরের দিনই এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে এনবিআর। বাণিজ্য মেলা ৩১ জানুয়ারি শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সময় আরো চার দিন বাড়ানো হয়েছে।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবির) আয়োজনে প্রতি বছরের মতো এবারো বাণিজ্য মেলা হচ্ছে। বাংলাদেশ ছাড়াও ২০টি দেশের ব্যবসায়ীরা মেলায় অংশ নিচ্ছেন। মেলায় এবার ১৩টি ক্যাটাগরিতে মোট ৫৭৭টি প্যাভিলিয়ন ও স্টল রয়েছে। এর মধ্যে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের স্টল রয়েছে ৪৮টি।

%d bloggers like this: