‘বঙ্গবন্ধু লাখো জনতার সামনে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন’

বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একাত্তরের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে লাখো জনতার সামনে দেয়া ঐতিহাসিক ভাষণেই স্বাধীনতার ঘোষণা দেন।

সোমবার রাজধানীর অফিসার্স ক্লাব আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ঐতিহাসিক ভাষণেই বঙ্গবন্ধু বলেন, শত্রুদের মোকাবিলা করার জন্য যার কাছে যা আছে, তা-ই নিয়ে সবাইকে প্রস্তুত থাকতে বলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ একাত্তর সালের ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের পথ বেয়ে এসেছে বাঙালির বিজয়।

রাজ্জাক বলেন, স্বাধীনতা বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন। এ অর্জনের পেছনে রয়েছে শোষণ-বঞ্চনা এবং রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম ও আত্মত্যাগের ইতিহাস। লাখো শহীদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতার সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সম্মিলিত প্রচেষ্টার বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর প্রাক্কালে দেশ, গণতন্ত্রবিরোধী সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করতে হবে। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা রক্ষা এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য সবাইকে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

মন্ত্রী পরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অফিসার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন খান। অনুষ্ঠানের শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

%d bloggers like this: