Home > বিনোদন > ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন আলিয়া ভাট

ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন আলিয়া ভাট

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডি ছবিতে পাশবিক নির্যাতনের দৃশ্যে অভিনয় করতে অনেক প্রথম সারির অভিনেত্রীকেই  দেখেছি আমরা। কোনও কোনও দৃশ্যের ভয়াবহতা দর্শকদের মনে দীর্ঘস্থায়ী ছাপ ফেলেছে। কোনও দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে দীর্ঘদিন ট্রমার মধ্যে কাটিয়েছেন এমন অনেক অভিনেতাই আছেন বলিউডে।

আশা করা যায়, অভিষেক চৌবের ‘উড়তা পাঞ্জাব’ ছবিটার কথা এর মধ্যেই ভুলে যাননি দর্শক! আর যারা ছবিটা দেখেননি, তাদের জানিয়ে রাখা ভাল- এই ছবিতেই একাধিক পুরুষ কতৃক পাশবিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার দৃশ্যে অভিনয় করতে হয়েছিল আলিয়া ভাটকে! সেই দৃশ্য যারা দেখেছেন ছবির পর্দায়, শিউরে শিউরে উঠেছে তাদের সারা শরীর! আর নায়িকা?

শুটিং হলেও এই দৃশ্যে অভিনয় করা ছিল তার পক্ষে খুবই ভয়ানক

ব্যাপার! সম্প্রতি সেই কথা জানিয়েছেন আলিয়া ভাট নিজেই! রাজীব মসন্দ পাঁচ নায়িকাকে নিয়ে বসিয়েছিলেন এক গোলটেবিল বৈঠক। বিদ্যা বালান, আনুশকা শর্মা, সোনম কাপুর, রাধিকা আপটে এবং আলিয়া ভাট- বলিউডের এই পঞ্চকন্যা সেই বৈঠকে কথা বলেছিলেন খোলামেলা দৃশ্যে তাদের কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে।

সবাই নানা মজা করলেও আলিয়া যা বললেন, তাতে চমকে যেতে হল!

সাফ জানিয়েছেন নায়িকা- ওই দৃশ্যে কাজ করাটা তার পক্ষে মোটেও খুব একটা সুখের ছিল না! ‘আমি স্পটে গেলাম, শুট শুরু হল, আমি কাজ করলাম, পরিচালক কাট বললেন, ঠিকঠাক ভাবেই মিটে গেল ব্যাপারটা! কিন্তু ভেতরে ভেতরে আমার অনবরত এক অস্বস্তি কাজ করছিল। জানি ব্যাপারটা শুটিং, তাই চুপ করেছিলাম! কিন্তু কিছুতেই সহজ হতে পারছিলাম না! আমার চিৎকার করে কাঁদতে ইচ্ছা করছিল’, বক্তব্য আলিয়ার!

নায়িকা আরও জানিয়েছেন, ওই দৃশ্যটা শুট করার পরে তিনি অনেকদিন সহজ জীবনযাপন করতে পারেননি। ‘কী যেন একটা হয়েছিল আমার! আমি সব সময়েই আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে থাকতাম। চুপ করে থাকতাম, কারও সঙ্গে বড় একটা কথা বলতাম না’, বক্তব্য থেকেই বোঝা যাচ্ছে দৃশ্যটা কতটা প্রভাব ফেলেছিল নায়িকার উপরে।

তাহলে কি ওই দৃশ্যের পরে নায়িকার যে উদাসীনতা দেখা গেছে ছবির পর্দায়, তা অভিনয় ছিল না? তাই তো মনে হয়! এটা ঠিক যে, ওই সময় আমার অদ্ভুত মানসিক পরিস্থিতি ছিল। কিন্তু তার চেয়েও অদ্ভুত, ওই পরিস্থিতিতে সকলের সামনে নিজেকে স্বাভাবিক দেখানোর চেষ্টা করে যেতে হচ্ছিল সমানে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ