Home > বিনোদন > ‘নতুন বছরে নতুনভাবে আসবো’

‘নতুন বছরে নতুনভাবে আসবো’

মাঝে বিরতির পর কাজে ফেরার সঙ্গে সঙ্গে পূর্ণিমা বেশকিছু নাটক ও টেলিছবি নিয়ে পুরো বছর ব্যস্ত সময়  কাটিয়েছেন। আগে দেখতে যেমন ছিলেন ঠিক তেমনই আছেন পূর্ণিমা। মিষ্টি হাসির এ পর্দাকন্যা সম্প্রতি একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। এছাড়া মাত্র ৫ মিনিটের সচেতনতামূলক একটি নাটিকাতেও অভিনয় করেছেন। এসব কাজ প্রসঙ্গে পূর্ণিমা মানবজমিনকে বলেন, এখন কাজ কমই করা হচ্ছে। আপাতত  নাটকে কাজ করার ইচ্ছে নেই। নতুন ছবি নিয়ে অনেকের সঙ্গে কথা হলেও কোনো ছবিতে চুক্তিবদ্ধ এখনও হইনি। নতুন বছরে ছবির বাজেট ও গল্প পছন্দ হলে তবেই কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে। কয়েকদিন আগে একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে ও একটি নাটিকাতে কাজ করলাম। ‘গরিব দুখীর মামলার ব্যয়, বাংলাদেশ সরকার দেয়’-এমন স্লোগান থাকবে নাটিকাটিতে। এটি পরিচালনা করেছেন টুকু মজনিউল। বাংলাদেশে টেলিভিশনসহ দেশের বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে নাটিকাটি প্রচার হবে। লিগ্যাল এইড ও ইউএনডিবি যৌথ প্রযোজনায় ৫ মিনিটের এই ডকুড্রামার দৃশ্যধারণ হয়েছে পুবাইল ও গাজীপুরে। এতে আমার বিপরীতে কাজ করেছেন নাট্যাভিনেতা রওনক হাসান। এছাড়া চিত্রনায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে রাজস্ব বিনিয়োগ বোর্ডের একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে ভিন্নরুপে দর্শক আমাকে দেখতে পাবেন। পূর্ণিমা বলেন, ফেরদৌস ভাইয়ের সঙ্গে এ কাজটিও জনসচেতনতামূলক ছিল। অন্য সব বিজ্ঞাপনচিত্র থেকে এর গল্পটি আলাদা। এ বিজ্ঞাপনচিত্রে নাগরিকদের রাজস্ব বা ভ্যাট দেওয়ার বিষয় নিয়ে সবার জন্য একটি তথ্য থাকবে। ১৯৯৭ সালে জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন  তোমার আমার’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দিলারা হানিফ রীতা ওরফে পূর্ণিমার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এখন পর্যন্ত তার অভিনীত ৮০টি চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে। কাজী হায়াত পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না’ ছবির জন্য ২০১০ সালে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন গুণী এ অভিনেত্রী। ২০০৭ সালের ৪ঠা নভেম্বর পারিবারিকভাবে আহমেদ জামাল ফাহাদের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকা অভিনেত্রী পূর্ণিমা। ২০১৪ সালের ১৩ই এপ্রিল সন্তানের মা হন তিনি। তার একমাত্র মেয়ের নাম আরশিয়া। মেয়ের জন্যই কম কাজ করতে দেখা যায় তাকে। পূর্ণিমা বলেন, মেয়েকে এখনও সময় দিতে হয়। বলতে গেলে তার জন্য কম কাজ করা হচ্ছে। সবশেষ ২০১৪ সালে তার অভিনীত ও সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘লোভে পাপ পাপে মৃত্যু’ ছবিটি মুক্তি পায়। এরপর তাকে বড়পর্দায় আর পাওয়া যায়নি। তবে মাঝে ছোটপর্দায় ‘দেয়ালের ওপারে’, ‘সন্দেহে মনদাহ’, ‘ফিরে যাওয়া হলো না’, ‘বাকবাকুম পায়রা’, ‘প্রিয় রং হলুদ’সহ বেশকিছু নাটকে কাজ করে বেশ প্রশংসিত হন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এছাড়া রেদওয়ান রনির ‘ক্যান্ডি ক্র্যাশ’ নামে একটি ধারাবাহিকে কাজ করেন তিনি। তবে আপাতত এর শুটিংও বন্ধ রয়েছে। আবারও বড়পর্দায় ফিরতে চান পূর্ণিমা। সে প্রসঙ্গে বলেন, বড় পর্দায় ভালো কাজ দিয়েই ফেরার ইচ্ছে রয়েছে। সেজন্য প্রস্তুতিও নিচ্ছি। তাই নাটকে আপাতত কাজ করছি না। নতুন বছরে নতুনভাবে আসবো। সে পর্যন্ত ভক্তদের অপেক্ষা করতে হবে। এ বছর পূর্ণিমা ও তাহসান অভিনীত ‘টু বি কন্টিনিউড’ নামে একটি ছবির ট্রেলার প্রকাশ করা হয়। অনেক আগে শুটিং করা এ ছবিটি পরিচালনা করেন ইফতেখার আহমেদ ফাহমি। এ ছবি প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন,  বেশ আগে দৃশ্যধারণ শেষ করা এ ছবির ‘এ আমার কেমন অসুখ’ শিরোনামের একটি গান এ বছরের ১৯শে ফেব্রুয়ারি ইউটিউবে প্রকাশ হয়। ছবির ডাবিংও শেষ হয়েছে। তবে কবে মুক্তি পাবে তা এখনও জানি না। আশা করছি, খুব শিগগিরই প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি পাবে। 

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ