Home > বিনোদন > মোল্লার মুড়ি উৎসবের দ্বিতীয় দিনে একঝাঁক তারকা

মোল্লার মুড়ি উৎসবের দ্বিতীয় দিনে একঝাঁক তারকা

এফডিসির পরিচিত মুখ মোল্লা আব্দুল মান্নান। দীর্ঘ চল্লিশ বছর হাড়ভাঙা পরিশ্রম করেও ভাগ্যের চাকা ঘোরাতে পারেননি। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে ফিরে যেতে চান নিজ গ্রামে। কিন্তু তাতেও বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ। আব্দুল মান্নানকে অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতার জন্য চলচ্চিত্র সাংবাদিকরা এগিয়ে এসেছেন। তারা ‘মোল্লার মুড়ি উৎসব’-এর আয়োজন করেছেন।

গত শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থায় (বিএফডিসি) এই উৎসব শুরু হয়। গতকাল ছিল উৎসবের দ্বিতীয় দিন। এদিন উৎসবে অংশ নেন একঝাঁক তারকা। এছাড়া চলচ্চিত্র পরিচালক ও অন্যান্য শিল্পীরা অংশ নেন। আজ উৎসবের শেষ দিন। উৎসবে মোল্লা আব্দুল মান্নান মুড়ি বিক্রি করছেন। যারা তাকে সহযোগিতা করতে চান তারা সৌজন্য মূল্যে তার কাছ থেকে মুড়ি কিনছেন। প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে দারুণ সাড়া পড়েছে উৎসবে।

দ্বিতীয় দিনে সাড়া দিয়ে এগিয়ে এসেছেন অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস, নাসরিন, চিত্রনায়িকা নিপুণ, বিপাশা কবির, অধরা খান, তানহা মৌমাছি, শাহ হুমায়রা সুবাহ, আসমা ঝিলিক, চিত্রনায়ক ইমন, বাপ্পী চৌধুরী, আদর আজাদ, প্রযোজক-নায়ক মুন্না, হৃদয় চৌধুরী, পরিচালক শামীমুল ইসলাম শামীম, রফিক সিকদার, শফিক হাসান, নাসির উদ্দিন মাসুদ, প্রযোজক রাজিব সারোয়ার, রিজভী, নজরুল রাজ, এস এইচ ভিশন, সিডাব, সানোয়ার ও রুবেল।

প্রথম দিনে সাড়া দিয়েছিলেন চিত্রনায়ক আলমগীর, জায়েদ খান, প্রযোজক আলিমুল্লাহ খোকন, ফরমান আলী, প্রযোজক জাহাঙ্গীর, চলচ্চিত্র নির্মাতা শাহ আলম কিরন, শাহীন সুমন, সাইমন তারিক, আরিফুর জামান আরিফ, জসিম উদ্দিন জাকির, আবু রায়হান জুয়েল, চিত্রনায়িকা মৌমিতা মৌ, তানিন সুবাহ, অরিন, অভিনেতা হারুন রশিদ, আব্দুল হক, সাংবাদিক প্রতীক আকবর, এসকে মিডিয়া ও পুলিশ কর্মকর্তা আল মামুন।

এ উৎসবের আয়োজন করেছেন মাজহার বাবু, আহম্মেদ তেপান্তর, রাহাত সাইফুল, এ এইচ মুরাদ, আসিফ আলম, রঞ্জু সরকার, রুহুল আমিন ভূঁইয়া।

আব্দুল মান্নান এখন বয়সের ভারে ন্যুজ। শেষ বয়সে গ্রামের বাড়ি ফিরে গিয়ে ছোট্ট একটি দোকান দিতে চান। এজন্য তার ১ লাখ টাকা প্রয়োজন। ১৯৭২ সালে এফডিসির মসজিদে বিনা পারিশ্রমিকে খাদেম হিসেবে কাজ শুরু করেন আব্দুল মান্নান। এখনো সেই পেশায় নিয়োজিত আছেন। পাশাপাশি ঝালমুড়ি বিক্রি করে চলছিল তার জীবিকা। বর্তমানে তিনি অসুস্থ, হাত-পা আগের মতো সচল নেই। প্যারালাইসিসে শরীরের একপাশ অবশ। এক হাত দিয়েই সব কাজ করেন তিনি।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ