Home > বিনোদন > শুটিং সেটে নায়িকার সঙ্গে মা কেন?

শুটিং সেটে নায়িকার সঙ্গে মা কেন?

জন্মদাত্রী হিসেবে প্রত্যেকের জীবনে মায়ের স্থান সবার ওপরে। তাই তাকে শ্রদ্ধা, ভালোবাসা জানানোর জন্য একটি বিশেষ দিনের প্রয়োজন নেই। তারপরও আধুনিক বিশ্বে মে মাসের দ্বিতীয় রোববার ‘বিশ্ব মা দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়। আজ ‘বিশ্ব মা দিবস’।

ঢাকাই চলচ্চিত্রে নায়িকাদের ক্যারিয়ারে মায়েদের ভূমিকা অনেক। মায়েদের অনুপ্রেরণায় নায়িকা বনে গেছেন অনেকেই। চলচ্চিত্রের শুটিং সেটে অধিকাংশ নায়িকার সঙ্গে তাদের মা থাকেন কিন্তু কেন? ঢাকাই চলচ্চিত্রের বেশ কয়েকজন চিত্রনায়িকা এ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।

বিদ্যা সিনহা মিম: দশম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় মিডিয়াতে আসি। আর তখন থেকেই মা সঙ্গে ছিলেন। মা সঙ্গে থাকলে স্বাচ্ছন্দ্য অনুভব করি, ভালো লাগে। আমার কাজে মা অনেক বেশি সহযোগিতা করেন। মানসিকভাবে চিন্তামুক্ত থাকি। মাকে ছাড়া কোথাও যেতে চাই না। আমি যে কটা দেশ ঘুরেছি, আমার মাও সেই কটা দেশ ঘুরেছেন। ক্যারিয়ারের এ পর্যায়ে আসার পেছনে মায়ের ভূমিকা অনেক। মাকে নিয়ে বলে শেষ করা যাবে না। মাকে অনেক বেশি ভালোবাসি।

আঁচল আঁখি : মা সঙ্গে থাকলে মনে হয় আমার ঘর সংসার পৃথিবী সবকিছু আমার সঙ্গে আছে। আমার পুরো পরিবারটাই আমার সঙ্গে আছে। কখনো আমার পরিবারের কথা মনে পড়ে না। বিষয়টা এমন— যার কথা মনে পড়ে সেই তো আমার সঙ্গে। আম্মু আমাকে প্রচন্ড সাপোর্ট দেন। আমি যখন শুটিংয়ে যাই তখন ঘুম থেকে উঠা, খাওয়া-দাওয়া, পোশাক সবকিছু রেডি করে রাখেন আম্মু। আমি যখন শুটিংয়ে থাকি তখন অনেক সময় খাবারের সময় পাওয়া যায় না। তখন আম্মু খাবার রেডি করে দাঁড়িয়ে থাকেন। আমাকে খাইয়ে দেন। মা ছাড়া এই ভালোবাসাটা দুনিয়াতে কেউ কোনো দিন দিতে পারবে না। এজন্য আমি প্রত্যেকটা সময় আমার মাকে সঙ্গে রাখতে চাই। আমার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারেও মায়ের অবদান রয়েছে।

তমা মির্জা: শুধু শুটিং সেটে নয়, মাকে আমি সবসময় সঙ্গে রাখতে পছন্দ করি। সংসারে সকল কাজ সামলে মা আমার সঙ্গে থাকেন। আমার সকল বিষয় মার সঙ্গে আগে শেয়ার করি। তার পরামর্শটাই আমি সেরা মনে করি। শুটিং সেটে আমার ভালো মন্দের বিষয়গুলো মাকে যতটা সহজভাবে বলতে পারি, অন্যদের তা সম্ভব নয়। তাছাড়া আমার মা আমাকে বুঝেন। আমার কাজকে সহজ করে দেন। মায়ের অবদান আছে বলেই এতটুকু আসতে পেরেছি। মিডিয়ায় কাজের পেছনে মায়ের অনুপ্রেরণা ছিল। শুধু মা দিবসে নয়, সারা জীবন মায়ের জন্য ভালোবাসা।

পূজা চেরি: আমার বয়স অনেক কম। মেয়ে যেন ভুল পথে না হাঁটে, মা হিসেবে এটা খেয়াল রাখা তার দায়িত্ব। এসব বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে মা আমার সঙ্গে শুটিং সেটে যান। মা আমার সঙ্গে থাকলেই সবকিছু সহজ মনে হয়। আমি যেখানেই হাঁটি সে পথটা তখন পরিষ্কার মনে হয়। কারণ আমার মনের ভেতরে এটা থাকে যে, আমার মা আমার সঙ্গে আছেন। আর একটা বিষয় হচ্ছে— আমার কোনো কাজ করতে হয় না। যেমন: শুটিংয়ে গিয়ে পোশাক যেখানেসেখানে ফেলে রাখি আর মা এগুলো গুছিয়ে রাখেন। একা থাকলে সবকিছু আমার নিজের করতে হয়। কিন্তু মা সঙ্গে থাকলে কখন কী লাগবে সেটা কেয়ার করেন তিনি। এজন্য মা সব সময় আমার সঙ্গে থাকেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ