করোনা প্রতিরোধে অভিনব মাস্ক

করোনার বিস্তার প্রতিরোধে শুরু থেকেই ফেস মাস্ক পরার পরামর্শ দিয়ে আসছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। মাস্ক পরা অবস্থায় স্বাভাবিকভাবেই কোনো কিছু খাওয়া যায় না। খাবার খাওয়ার সময় মাস্ক খুলতেই হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ায় এমন এক ধরনের অভিনব মাস্ক তৈরি করা হয়েছে, যা পরা অবস্থায় যেকোনো কিছু খাওয়া যাবে সহজেই। কেননা ‘কস্ক’ নামক নতুন এই মাস্ক কেবল নাক ঢেকে রাখবে।

 

বাজারে বর্তমানে যেসব মাস্ক পাওয়া যায় সেগুলো ব্যবহার করলে খাবার খাওয়ার সময় যেহেতু মাস্ক খুলতে হয়, তাই সেসময় লোকজনের বায়ুবাহিত করোনাভাইরাসে সংক্রমণের ঝুঁকি থাকে। এই ঝুঁকি থেকেই সুরক্ষা দেবে ‘কস্ক’ মাস্ক।

কস্ক মাস্ক সাধারণ মাস্কের মতোই পরা যায়, যা নাক ও মুখ- দুটোই ঢেকে রাখে। তবে অতিরিক্ত সুবিধা হলো, খাওয়ার সময় এই মাস্ক ভাঁজ করে কেবল নাকের ওপর পরা যায়।

অদ্ভুত এই মাস্ক তৈরি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানি অ্যাটম্যান। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যে ভাইরাল হওয়া কস্ক মাস্ক নেটিজেনদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে। ১ বক্স কস্ক মাস্কের দাম প্রায় ১১.৪২ ডলার, টাকার হিসাবে প্রায় ১০০০ টাকা। ১ প্যাকেটে ১০টি মাস্ক থাকে।

 

নেটিজেনদের অনেকেই এ ধরনের মাস্ক নিয়ে রসিকতায় মেতেছেন। তবে ডেকিনস ইনস্টিটিউট ফর হেলথ ট্রান্সফরমেশনের মহামারি রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ক্যাথরিন বেনেট বলেন, খাবার খাওয়ার সময় কিছু না পরার তুলনায় কস্ক মাস্ক ভালো হবে। যদিও শুধু নাক নয়, মুখের মাধ্যমেও করোনা প্রবেশের ঝুঁকি থাকে।

প্রফেসর বেনেটের মতে, মূলত যারা নাক দিয়ে শ্বাস নেয় তাদের জন্য এই মাস্ক করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে পারে। কিন্তু অনেকে খাওয়ার সময় কথা বলে থাকে, সেসময় মুখ দিয়ে শ্বাস নেওয়া হয়। এ বিষয়টি সম্ভবত বড় পার্থক্য সৃষ্টি করবে।

%d bloggers like this: