Home > আন্তর্জাতিক > মাঝ আকাশে দুটি ইঞ্জিনই বিকল, রক্ষা বিমানের

মাঝ আকাশে দুটি ইঞ্জিনই বিকল, রক্ষা বিমানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
জনতার বাণী,
সিঙ্গাপুর: মাঝ আকাশে
বিমানের দুটি ইঞ্জিনই
সাময়িক ভাবে বন্ধ হয়ে
গিয়েছে। ভয়ানক সেই
অভিজ্ঞতা পেরিয়ে
অবশ্য প্রাণে বেচে
গিয়েছেন ১৮২ জন
যাত্রী।
সম্প্রতি সিঙ্গাপুর
এয়ারলাইন্সের
সাংহাইগামী বিমান
এসকিউ ৮৩৬ এমন বিপত্তির
মুখে পড়েছিল। পরে
খারাপ আবহাওয়ার মধ্যে
প্রায় ১৩ হাজার ফুট
নীচে নেমে বড়
দুর্ঘটনা এড়াতে সক্ষম
হয়েছেন বিমানচালক।
কিন্তু মাঝ আকাশে কী
ভাবে এই ঘটনা ঘটল, তার
তদন্ত শুরু করেছে বিমান
সংস্থা।
গত শনিবার সিঙ্গাপুরের
চাঙ্গি বিমানবন্দর
থেকে সাংহাইয়ের
উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল
এসকিউ ৮৩৬। বিমান
সংস্থার মুখপাত্র
জানান, ওড়ার সাড়ে
তিন ঘণ্টা পরে ৩৯ হাজার
ফুট উচ্চতায় ঘটনাটি ঘটে।
বিমানের দুটি ইঞ্জিনই
সাময়িক ভাবে বন্ধ হয়ে
যায়। বিমানচালক ১৩
হাজার ফুট নীচে নেমে
পরিস্থিতি সামাল দেন।
পরে সাংহাইয়ে
ঝুকিমুক্তভাবে অবতরণ
করেন।
মাঝ আকাশে ১৮২ জন
যাত্রী এবং ১২ জন
বিমানকর্মীর এ ভাবে
প্রাণসংশয় হওয়ায় ঘটনার
তদন্ত শুরু করেছে
সংস্থা। যদিও সংস্থার
মুখপাত্রের দাবি,
ওড়ার আগে বিমানের
ইঞ্জিন দুটি পরীক্ষা
করা হয়েছিল। সাংহাই
নামার পরেও সেগুলি
ফের খতিয়ে দেখা হয়।
কোনও অস্বাভাবিকতা
খুঁজে পাওয়া যায়নি।
বিমান পরিষেবায় দুটি
ইঞ্জিনই বন্ধ হয়ে
যাওয়ার ঘটনা বিরল। তবে
এমন ঘটলে কী করতে হবে,
তার প্রশিক্ষণও
পাইলটদের দেওয়া হয়।
বিমানে ত্রুটি নেই অথচ
মাঝ আকাশে তা বন্ধ হয়ে
গেল কেন এমন প্রশ্নে
অভিজ্ঞ পাইলট সর্বেশ
গুপ্ত বলেন, ৩৯ হাজার
ফুট উচ্চতায় তাপমাত্রা
অনেক কম থাকে। তখন বরফে
ইঞ্জিন অনেক সময় জমে
যেতে পারে। তার জন্য
সাধারণত বিমানে
অ্যান্টি আইসিং
সিস্টেম থাকে। কিন্তু
সেটি হয়তো এই বিমানের
ক্ষেত্রে কাজ করেনি।
তবে আদৌ এই কারনেই
বিপত্তি ঘটেছিল কিনা,
সে বিষয় খতিয়ে দেখবে
বিমান সংস্থা।
সূত্র: এএফপি

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ