Home > আন্তর্জাতিক > ওবামার বিদায়ী ভাষণের গুরুত্বপূর্ণ ১০ পয়েন্ট

ওবামার বিদায়ী ভাষণের গুরুত্বপূর্ণ ১০ পয়েন্ট

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা জাতির উদ্দেশে বিদায়ী ভাষণ দিলেন। এতে তিনি মার্কিনিদের সাহস যুগিয়েছেন। সংখ্যালঘু, বিশেষ করে মুসলিমদের প্রতি বৈষম্য প্রত্যাখ্যান করেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডনাল্ড ট্রাম্পকে দেশের ভবিষ্যতের জন্য সমর্থন দিতে অনুরোধ করলেন ফেলো ডেমোক্রেটদের। এখানে তার বক্তব্যের গুরুত্বপূর্ণ ১০টি পয়েন্ট তুলে ধরা হলো:
১.    আমার জীবনের বাকি দিনগুলোতে একজন নাগরিক হিসেবে আপনাদের পাশে থাকবো।
২.    গণতন্ত্রের জন্য কাজ করা সব সময়ই কঠিন, বিতর্কিত। কখনো কখনো তা রক্তপাতের হয়। আমরা যখন আতঙ্কের মধ্যে ডুবে যাই তখন জাগরিত করে গণতন্ত্র।
৩.     জলবায়ুর পরিবর্তনকে প্রত্যাখ্যান করলে তা হবে ভবিষ্যত প্রজন্মের সঙ্গে প্রতারণা।
৪.    আমাদের অর্জন যদি কখনো আমরা ত্যাগ না করি তাহলে বিশ্বে আমাদের যে প্রভাব তার সঙ্গে খাপ খাওয়াতে পারবে না রাশিয়া ও চীন।
৫.    মুসলিম আমেরিকানদের বিরুদ্ধে বৈষম্যকে আমি প্রত্যাখ্যান করি।
৬.    গত আট বছরে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে কোনো বিদেশী সন্ত্রাসী সংগঠন হামলা চালাতে সক্ষম হয় নি।
৭.    আমি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব থেকে সরে যাবো। কিন্তু এখনও বর্ণবাদ বিভক্তি সৃষ্টিকারী শক্তি হিসেবে রয়ে গেছে।
৮.    প্রেসিডেন্ট পদে উত্তরসূরির কাছে মসৃণ পন্থায় ক্ষমতা হস্তান্তর করবো।
৯.    জনতার ভিড় থেকে এক সময় ‘আপনাকে আরও চার বছর ক্ষমতায় চাই’ চিৎকার উঠতে থাকে। এ সময় ওবামা বলেন, আমি তো আর ক্ষমতায় থাকতে পারি না।
১০.    যখন সাধারণ মানুষ যুক্ত হয়ে একত্রিত হয় পরিবর্তন হয় তখনই।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ