Home > আন্তর্জাতিক > ‘জলবায়ু পরিবর্তনে প্রতি সপ্তাহে প্রাকৃতিক দুর্যোগ হচ্ছে’

‘জলবায়ু পরিবর্তনে প্রতি সপ্তাহে প্রাকৃতিক দুর্যোগ হচ্ছে’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে গড়ে প্রতি সপ্তাহে ঘূণিঝড়সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘটছে। তবে এর অধিকাংশ খুব কমই আন্তর্জাতিক মনোযোগ আকর্ষণ করছে। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত বিপর্যয় ঠেকাতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে দ্রুত প্রস্তুতি নিতে হবে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের দুর্যোগ প্রশমন বিষয়ক বিশেষ দূত মামি মিজুতোরি জানান, মোজাম্বিকে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় ইদাই ও কেনেথ এবং ভারতের খরা বিশ্বব্যাপী সংবাদ শিরোনাম হয়েছে। তবে মৃত্যু, বাস্তুচ্যুত ও দুর্ভোগ সৃষ্টিকারী বিপুল সংখ্যক ‘স্বল্প প্রভাব বিস্তারকারী দুর্যোগ’ ধারণার চেয়ে দ্রুত ঘটে চলছে।

তিনি বলেন, ‘এটা ভবিষ্যতের বিষয় নয়, বরং বর্তমানের।’তার মানে হচ্ছে জলবায়ু বিপর্যয়ে অভিযোজনকে আর দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা হিসেবে দেখা যাবে না। অভিযোজনের জন্য এখনই বিনিয়োগ করতে হবে বলে জানান মিজুতোরি।

তিনি বলেন, ‘লোকদের অভিযোজন ও প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে স্থিতিস্থাপকতা নিয়ে আরো বেশি আলোচনা করতে হবে।’

বছরে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত দুর্যোগের ব্যয় ৫২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বলে ধরা হয়েছে। অথচ পরবর্তী ২০ বছরে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধিজনিত প্রভাব প্রতিরোধে ভবন পরিকাঠামো নির্মাণে অতিরিক্ত ব্যয় মাত্র ৩ শতাংশ বা দুই দশমিক সাত ট্রিলিয়ন ডলার।

মামি মিজুতোরি বলেন, ‘এটা খুব বেশি অর্থ নয় (অবকাঠামোগত ব্যয়ের ক্ষেত্রে), কিন্তু বিনিয়োগকারীরা যথেষ্ঠ ব্যয় করছে না। স্থিতিস্থাপক ভবন একটি পণ্য হওয়া উচিৎ, যার জন্য লোকজন অর্থ দেবে।’ তার মানে হচ্ছে বাড়ি,সড়ক ও রেলব্যবস্থা, কারখানা, পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার মতো নতুন অবকাঠামোর মান সাধারণীকরণ করতে হবে যাতে এগুলো বন্যা,খরা, ঝড় ও চরম আবহাওয়ার ক্ষেত্রে কম ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ