Home > আন্তর্জাতিক > পৃথিবী কী আরেকটি ‘স্নায়ুযুদ্ধের’ কাছাকাছি?

পৃথিবী কী আরেকটি ‘স্নায়ুযুদ্ধের’ কাছাকাছি?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
জনতার বাণী,
মস্কো: রাশিয়ার হুমকি
মোকাবেলায় করণীয় ঠিক
করতে ব্রাসেলসের জরুরি
বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন
ন্যাটোর প্রতিরক্ষা
মন্ত্রীরা।
মার্কিন
প্রতিরক্ষামন্ত্রী
অ্যাশ কার্টার ইউরোপে
আসার পথে বলেছেন, তিনি
নতুন করে আরেকটি
স্নায়ুযুদ্ধ চান না।
বিবিসির সংবাদদাতা
জোনাথন বেল বলছেন,
বাস্তবে ন্যাটো আর
রাশিয়ার মধ্যে যেভাবে
বিদ্বেষ বাড়ছে আর
পরস্পরের প্রতি সামরিক
শক্তি প্রদর্শন করে
চলেছে, তাতে অনেকেই
আরেকটি স্নায়ুযুদ্ধের
আশঙ্কা করছেন।
গত সপ্তাহেই রাশিয়ান
প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির
পুতিন ঘোষণা দিয়েছেন,
পারমাণবিক মিসাইল বহরে
তিনি আরো ৪০টি
দূরপাল্লার
ব্যালেস্টিক মিসাইল
যোগ করতে যাচ্ছেন।
ওই ঘোষণাকে সামরিক
হুমকি বলে বর্ণনা করেছে
ন্যাটো। ন্যাটোর
মহাসচিব জেনস
স্টোলটেনবার্গ বলেছেন,
তারা লক্ষ্য করেছেন যে,
রাশিয়া তাদের সামরিক
খাতে বরাদ্দ বাড়িয়েই
চলেছে, বিশেষ করে
পারমাণবিক শক্তি বৃদ্ধি
করছে। এ কারণেই ন্যাটোর
শক্তিও বাড়ানো হচ্ছে।
অবশ্য এর আগেই পূর্ব
ইউরোপের ন্যাটো
দেশগুলোয় নিজেদের
উপস্থিতি আরো
বাড়ানোর ঘোষণা
দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।
ইউক্রেনের সহিংসতায়
রাশিয়ার ভূমিকার পর
থেকেই ন্যাটো আর
রাশিয়ার মধ্যে
উত্তেজনা চলছে।
পোল্যান্ডে প্রথমবারের
মতো দ্রুত মোতায়েনে
সক্ষম ন্যাটো
টাস্কফোর্সের একটি
পরীক্ষাও চালিয়েছে
সংস্থাটি। রেল, সড়ক আর
নৌপথে চালানো ওই মহড়ার
মধ্যে মস্কোকে পরিষ্কার
হুঁশিয়ারি দেয়া
হয়েছে বলে বিশ্লেষকরা
মনে করেন।
মস্কো থেকে বিবিসির
সংবাদদাতা জানাচ্ছেন,
সম্প্রতি রাশিয়ার
প্রতিরক্ষা খাতে বিপুল
বরাদ্দ বাড়িয়েছে
সরকার।
কোনো পক্ষই অবশ্য সরাসরি
একে অপরকে দায়ী করছে
না। এখনো আলোচনার
রাস্তা খোলা রাখছে
উভয়পক্ষই। তাই এখনি কেউ
একে স্নায়ুযুদ্ধ বলতে
রাজি নন। কিন্তু
পরিস্থিতি অনেকটা সে
রকমই হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ