মহামারিকালে মালয়েশিয়ার গ্লাভস কোম্পানির ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

করোনার প্রাদুর্ভাবের সময় ব্যাপক চাহিদার পরও বিশ্বের শীর্ষ একটি গ্লাভস উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের অধিনস্থ দুই কোম্পানি থেকে সার্জিক্যাল গ্লাভস আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার টপ গ্লাভ নামের ওই প্রতিষ্ঠানটি এ তথ্য জানিয়েছে।

টপ গ্লাভের বিরুদ্ধে অভিযোগ, প্রতিষ্ঠানটিতে উৎপাদন বাড়াতে জবরদস্তিমূলকভাবে শ্রম দিতে বাধ্য করা হয়।

ইউএস কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার প্রটেকশন জানিয়েছে, তারা টপ গ্লাভের দুটি সহপ্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য জানায়নি।

মালয়েশিয়া বিশ্বের শীর্ষ রাবার গ্লাভস উৎপাদনকারী দেশ। তবে এই শিল্পখাতে দীর্ঘদিন ধরে শ্রমিক নিপীড়নের অভিযোগ রয়েছে। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের অভিবাসী শ্রমিকদের কারখানাতে জোরপূর্বক শ্রমদান, বাধ্যতামূলক ওভারটাইম, ঋণের জালে আটকানো, বেতন বকেয়া রাখা এবং পাসপোর্ট জব্দ করে রাখা হয়।

গত ডিসেম্বরে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানে প্রকাশিত এক বিশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়, টপ গ্লাভে কর্মরত বাংলাদেশি ও নেপালি শ্রমিকদেরকে শোষনমূলক পরিস্থিতিতে কাজ করতে হয়। কারখানাতে তাদের মানসিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়। তাদেরকে সপ্তাহ সাতদিনই কমপক্ষে ১২ ঘন্টা করে কাজ করতে হয়। পুরো মাসে কেবল একদিন তারা ছুটি হিসেবে পান।

টপ গ্লাভ বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, তারা নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। কী কারণে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে এ ব্যাপারে তারা জানার চেষ্টা করছেন।

এর আগে গত বছর ডব্লিউআরপি নামে মালয়েশিয়ার আরেকটি গ্লাভ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছিল। তবে গত মার্চে সেই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়।

%d bloggers like this: