Home > আন্তর্জাতিক > ভারতে তাপদাহে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮২৬

ভারতে তাপদাহে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮২৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
জনতার বাণী,
নয়াদিল্লী: ভারতে ভয়াবহ তাপদাহে
মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শুক্রবার
পর্যন্ত গত এক সপ্তাহে সারাদেশে
তীব্র তাপদাহে মৃতের সংখ্যা বেড়ে
হয়েছে ১,৮২৬। এছাড়া কয়েক হাজার
গ্রামে পানির ঘাটতি দেখা দিয়েছে।
শুধু অন্ধ্র প্রদেশ ও তেলেঙ্গানা
রাজ্যেই গত ২৪ ঘন্টায় তাপদাহে
আরো ৪৩০ জনের প্রাণহানি হয়েছে।
ফলে এই দুটি রাজ্যে গত এক সপ্তাহে
তাপদাহে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে
হয়েছে ১,৭৫০।
আবহাওয়া অফিস বলেছে, তাপদাহ
থেকে রক্ষা পেতে দেশবাসীকে আরো
দুদিন দিন অপেক্ষা করতে হবে।
তেলেঙ্গানায় গত ২৪ ঘন্টায় ১শ
জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে রাজ্যে মৃতের
সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪০। অন্ধ্র
প্রদেশে গতকাল হিটস্ট্রোকে মারা
গেছে ৩২৯ জন। এ নিয়ে চলতি
মৌসুমে শুধু এ রাজ্যেই মারা গেছেন
১,৩৩৪ জন। অন্ধ্র প্রদেশের সরকার
ইতোমধ্যে রাজ্যে হিটস্ট্রোকে
নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এক লাখ
করে রুপি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে।
অন্ধ্র ও তেলেঙ্গানা রাজ্যে প্রচন্ড
তাপদাহ থেকে এখনই মুক্তির কোন
সম্ভবনা দেখা যাচ্ছে না। রাজ্য দুটিতে
সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি
সেলসিয়াস বিরাজ করছে। তেলেঙ্গানার
খাম্মাম ও নিজামাবাদে এবং অন্ধ্র
প্রদেশের নন্দিগামা ও অঙ্গলিতে
তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস
রেকর্ড করা হয়েছে।
দিল্লীতে প্রচন্ড গরম ও শুষ্ক
আবহাওয়া বিরাজ করছে। এখানে
সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১ দশমিক ১
ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।
আবহাওয়া অফিস বলেছে, সারাদিন
একই ধরনের পরিস্থিতি বিরাজ করতে
পারে। আকাশ পরিষ্কার এবং সর্বোচ্চ
ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪১ ও ২৭
ডিগ্রির মধ্যে থাকতে পারে।
উড়িষ্যা, ঝাড়খন্ড, বিদর্ভ,
তেলেঙ্গানা, মধ্য প্রদেশ, ছত্তিশগড়
ও অন্ধ্র প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে
তাপদাহ আরো দুই দিন অব্যাহত থাকবে
বলে সতর্কবাণী করেছে ভারতের
আবহাওয়া অধিদপ্তর। এটি ভারতের
উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বেশিরভাগ এলাকা
এবং জম্মু ও কাশ্মীর, কর্ণাটক, তামিল
নাড়ু ও পদুচেরির কয়েকটি এলাকায়
বজ্রসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে।
তীব্র তাপদাহে রাজস্থানের
জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।
রাজ্যের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ থেকে
৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে বিরাজ
করছে। রাজ্যের রাজধানী জয়পুরসহ
কয়েকটি এলাকায় তাপমাত্রা
স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি
সেলসিয়াস বেশি। জয়পুরে তাপমাত্রা
৪৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস বিরাজ
করছে যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ ডিগ্রি
বেশি। বুন্ডি ও কোটায় তাপমাত্রা ৪৫
দশমিক ৫ ও ৪৫ দশমকি ৪ ডিগ্রি
সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।
বিহারে তাপদাহ অব্যাহত রয়েছে। গয়া
জেলায় তাপমাত্রা ৪১ দশমিক ৭ ডিগ্রি
সেলসিয়াস ছুঁয়েছে। পাটনায় ৩৯ ডিগ্রি
তাপমাত্রা বিরাজ করছে। উত্তর
প্রদেশে এখনও তাপদাহ চলছে।
লক্ষণৌতে শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ
তাপমাত্রা আরো বাড়তে পারে বলে
আশংকা করা হচ্ছে।
মধ্যাঞ্চলের মহারাষ্ট্র রাজ্যে পানির
ব্যাপক ঘাটতি দেখা দিয়েছে। কয়েক
হাজার পানির ট্যাঙ্কার দিয়ে প্রায় ৪
হাজার গ্রাম ও মহল্লায় পানি সরবরাহ
করা হচ্ছে। এছাড়া প্রচন্ড তাপে
ক্ষেতের ফসল পুড়ে যাচ্ছে ও
বন্যপ্রাণী মারা যাচ্ছে। কিছু পানির
অভাবে মারা পড়ছে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ