‘ফিলিস্তিনে বসতি নির্মাণের ঘোষণা ট্রাম্পের জন্য পরীক্ষা’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে নতুন বসতি নির্মাণের ঘোষণা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য পরীক্ষা স্বরূপ। তিনি বলেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে ট্রাম্প আমলের পার্থক্য কী হয়, নতুন বসতি নির্মাণের মাধ্যমে তা যাচাই করা হবে।

বুধবার নেতানিয়াহু ইসরায়েলি মন্ত্রিসভায় বক্তৃতা করার সময় এ কথা বলেছেন।

এ সময় তিনি ঘোষণা করেন, ‘ওবামা প্রশাসনের সময়কাল থেকে এখন আমরা নতুন এবং ভিন্ন অনেক কিছুই করতে যাচ্ছি।’

গত মঙ্গলবার ইসরায়েলের যুদ্ধ মন্ত্রণালয় ঘোষণা দিয়েছে, ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে নতুন করে ২ হাজার ৫০০ বসতি নির্মাণ করা হবে। জাতিসংঘসহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থা ইসরায়েলের এ ঘোষণার নিন্দা জানালেও যুক্তরাষ্ট্র একেবারেই নিশ্চুপ। বিষয়টি ইসরায়েলের মন্ত্রিসভা অনুমোদনও করেছে।

এ প্রসঙ্গে নেতানিয়াহু বলেন, ওবামার আট বছরের শাসনামলে ইসরায়েল বহু সমস্যার মোকাবেলা করেছে; তারপর এই অনুমোদন দেয়া হলো।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, অধিকৃত ফিলিস্তিনে শুধু বসতিই নির্মাণ করা হবে না বরং জেরুজালেম নিয়ে আলাদা কিছু পদক্ষেপ নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত নভেম্বরে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী করার ঘোষণা দিয়েছিলেন নেতানিয়াহু। ওই সময় ইউনেস্কোসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছিল। তবে এরপরেও ওই সময় বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইসরায়েলের এ প্রস্তাবে সমর্থন জানিয়েছিলেন।

%d bloggers like this: