Home > আন্তর্জাতিক > কলকাতার রাস্তায় সাঁতার কাটছে শিশুরা

কলকাতার রাস্তায় সাঁতার কাটছে শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
জনতার বাণী,
কলকাতা: প্রবল বৃষ্টির জেরে
বানভাসি তিলোত্তমা।
বৃষ্টিতে কার্যত ঘরবন্দি শহরের
মানুষ। তবে নিতান্তই যাদের
বের হতে হয়েছে দুর্ভোগের
শিকার হয়েছেন তারাই।
টানা বৃষ্টিতে নাজেহাল
কলকাতাবাসী।শহরের উত্তর
থেকে দক্ষিণ, অনেক জায়গায়
রাস্তা এখনো জলমগ্ন। রাতভর
বৃষ্টিতে পানি জমেছে
কলকাতাসহ শহরতলির বিভিন্ন
স্থানে। কোথাও হাটু, আবার
কোথাও বা কোমরপানি
জমেছে রাস্তার উপর।
এরই মধ্যে কলকাতাসংলগ্ন
ভিআইপি, রাজারহাট-
নিউটাউনসহ এয়ারপোর্টের
বিভিন্ন রাস্তায় সকাল
থেকে দলবেধে সাঁতার
কাটতে শুরু করেছে শিশুরা।
অনেককে মাছ ধরার জন্য জাল
ফেলতেও দেখা গেছে
রাজপথে।
এখানেই শেষ নয়। জায়গায়
জায়গায় পড়ে রয়েছে গাছ।
চলেনি অটো-রিকশাও।
বিঘ্নিত হয়েছে রেল চলাচল।
ভোগান্তির শিকার হয়েছেন
রেলযাত্রীরা।
কলকাতার উল্টোডাঙ্গা,
আর্মহাস্ট স্ট্রিট, যাদবপুর,
বেহালা, বালিগঞ্জ,
রাসবিহারী, ল্যান্সডাউন,
যোধপুর পার্কসহ বিভিন্ন
স্থানে রাস্তায় পানি জমে
নদীর চেহারা নিয়েছে।
পানি জমে ভয়ংকর অবস্থার
সৃষ্টি হয়েছে কলকাতার
কলেজ স্ট্রিট, ঠনঠনিয়া,
সেন্ট্রাল এভিনিউ, পামার
বাজার এলাকায়ও। একই
অবস্থা শহরতলির বিভিন্ন
স্থানে এবং দক্ষিণবঙ্গের
বিভিন্ন জেলায়।
কলকাতা ও শহরতলির একাধিক
রাস্তায় নৌকা নামানো
হয়েছে। যাত্রীদের
যাতায়াতের সুবিধার্থে
ভ্যানে করে পানিমগ্ন
রাস্তা পারাপার চলছে।
পানিমগ্ন রাস্তা পার করে
দেওয়ার জন্য যাত্রীদের কাছ
থেকে মাথাপিছু মোটা
অঙ্কের টাকা দাবি করছেন
ভ্যানচালকরাও।
একটানা প্রায় সাত দিন কখনও
টিপটিপ, কখনও ভারি বৃষ্টি
হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শহর
কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছে ১২২
দশমিক ৫ মিলিমিটার। আজো
কোথাও ভারি এবং কোথাও
হালকা বৃষ্টি চলবে বলে
জানিয়েছে আলিপুর
আবহাওয়া দপ্তর।
আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে,
নিম্নচাপের জেরে এই
বৃষ্টিপাত।
এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে
বৃষ্টির পানিতে ভেসে
কলকাতার বিধান সরণি
এলাকায় এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে
বলে অভিযোগ উঠেছে।
অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার রাতে
একটানা বৃষ্টি আর দমকা
হাওয়ায় কলকাতার বিভিন্ন
স্থানে রাস্তার ওপর গাছ
উপড়ে পড়ে। লাইনের ওপর গাছ
পড়ে দীর্ঘক্ষণ ব্যাহত হয়
মেট্রোরেল পরিষেবাও।
ব্যারাকপুরের টিটাগড়
রেলস্টেশনের কাছে
বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে পানি
জমেছে। শিয়ালদহ বিভিন্ন
শাখায় ট্রেন চলছে
শম্বুকগতিতে। ফলে শুক্রবার
সকালে কাজে বেরিয়ে
পথেই ভোগান্তির শিকার
হচ্ছেন বহু মানুষ।
যদিও মেয়র শোভন
চট্টোপাধ্যায় পানি জমার
বিষয়টি একেবারে উড়িয়ে
দিয়েছেন। তিনি দাবি
করেন, কলকাতায় পানি জমার
যে ছবি দেখানো হচ্ছে, তা
বৃষ্টি হওয়ার মুহূর্তের ছবি।
শহরের মধ্যে জল নেমে
গিয়েছে। বৃহত্তর কলকাতার
কয়েকটি এলাকায় বিক্ষিপ্ত
ভাবে জল জমে রয়েছে। জমা
জলও যাতে তাড়াতাড়ি
নেমে যায় তার জন্য পুরসভার
আধিকারিক এবং কর্মীরা
জোরকদমে কাজে নেমেছেন।
পাম্পগুলোকেও কাজে
লাগানো হয়েছে।
সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ