Home > তথ্য ও প্রযুক্তি > জেনে নিন ২০১৬ সালের সেরা ৫ ট্যাবলেট সম্পর্কে

জেনে নিন ২০১৬ সালের সেরা ৫ ট্যাবলেট সম্পর্কে

আমাদের জীবন যাত্রাকে সহজ করার জন্য প্রযুক্তি পণ্যে এসেছে নানা পরিবর্তন। আগের সেই বড় কম্পিউটার এখন চলে এসেছে মানুষের হাতের মুঠোতেই।

প্রযুক্তি নির্মাতারাও চাচ্ছে মানুষের উপযোগী করে সব ডিভাইস তৈরি করতে। ট্যাবলেট এরকমই এক ডিভাইস, যা আমাদের প্রযুক্তির সব চাহিদা মিটিয়ে দিচ্ছে ঘরে বাইরে। এখন আপনি যদি নতুন একটা ট্যাবলেট কিনতে চান, তাহলে হাজারো ট্যাবলেটের মধ্যে আপনি দ্বিধায় পড়তে পারেন। তাই আপনার জন্য রইল ২০১৬ সালের সেরা ৫টি ট্যাবলেটের বিবরণ-
১. আইপ্যাড প্রো (৯.৭-ইঞ্চি):

অ্যাপল এখনো ট্যাবলেটের জগতকে শাসন করছে। ২০১৫ সালের শরৎকালে অ্যাপল বাজারে আনে আইপ্যাড প্রো। এর রয়েছে একটি বিশাল ও জাঁকালো ডিসপ্লে। আর এটি ল্যাপটপের মতো দ্রুতগতির। তবে ১২.৯ ইঞ্চির এই ডিসপ্লেটি একটি ট্যাবলেটের জন্য একটু বড়ই হয়ে গেছে। এছাড়া এটি বেশ ব্যয়বহুলও বটে। এটি ৭৯৯ ডলারে বিক্রি শুরু হয়। 

দ্বিতীয় প্রোটি বাজারে আসে ২০১৬ সালের মার্চে। এটি আরো ছোট। এর ডিসপ্লেটি মাত্র ৯.৭ ইঞ্চি। আর ৫৯৯ ডলারে এর বিক্রি শুরু হয়। আর সংক্ষেপে ৯.৭ ইঞ্চির এই ট্যাবলেটটি অ্যাপলের সেরা ট্যাবলেট। এটির সর্বোচ্চ মূল্য ৭২৯ ডলার। 

২. আইপ্যাড মিনি ৪:

এটি বাজারের সেরা ছোট ট্যাবলেট। এর আকার অনেকটা স্মার্টফোনের মতো। এটি আগের প্রজন্মের আইপ্যাড মিনিকে ছাড়িয়ে গেছে, একটি হালনাগাদকৃত ক্যামেরা, উন্নততর ৭.৯ ইঞ্চি রেটিনা ডিসপ্লে এবং দ্রুতগতির প্রসেসরের কারণে। এটি স্প্লিট-স্ক্রিন অ্যাপস এর মাধ্যমে সীমিত আকারে বহুমুখি কার্যও সমাধা করতে পারে। আর আইফোনের মতো এটি অ্যাপলের আইওএস অপারেটিং সিস্টেমে চলে। তার মানে আপনি বিস্তৃত পরিসরে গুনগত মান সম্পন্ন অ্যাপস এ প্রবেশাধিকার পাবেন। এটি অ্যাপলের সবচেয়ে সস্তা ট্যাবলেট। 

এর সুচনা মূল্য ৩৯৯ ডলার। তবে  ২৬৯ ডলারের আইপ্যাড মিনি ২ এখনো সবচেয়ে সস্তা হলেও ২০১৭ সালেই এর মেয়াদ ফুরিয়ে যাবে। 

৩. গুগল পিক্সেল সি:

গুগলের পিক্সেল ব্র্যান্ডটি বাজারে আসার পর থেকেই দ্রুত গতিতে প্রিমিয়ার অ্যান্ড্রয়েড ব্র্যান্ড হিসেবে আবির্ভুত হচ্ছে। গুগলের ১০.২ ইঞ্চির এই ট্যাবলেটটির হার্ডওয়্যারগুলো যথাসম্ভব উৎকৃষ্ট মান সম্পন্ন। 
এটির বিক্রি শুরু হয় ৪৯৯ ডলার মূল্যে। 

৪. মাইক্রোসফট সারফেস প্রো ৪:

ডিটাচেবল মার্কেটে মাইক্রোসফট হলো অবিসংবাদিত নেতা। এমনকি প্রকৃতপক্ষে, আপনি বলতে পারেন মাইক্রোসফট আধুনিক ডিটাচেবল এর উদ্ভাবক। এতে একটি ট্যাবলেটের সঙ্গে একটি আলাদা কীবোর্ড সমন্বয় করা হয়েছে। ১২.৩ ইঞ্চির সারফেস প্রো ৪ হলো জনপ্রিয় ডিটাচেবলস এর সর্বশেষ সংস্করণ। যাতে রয়েছে এক বিশাল, উচ্চ-রেজ্যুলেশনের ডিসপ্লে, একটি উন্নততর লেখনী, ষষ্ঠ প্রজন্মের একটি কোর ইনটেল প্রসেসর। আর একটি উন্নত ঐচ্ছিক কীবোর্ড যাতে রয়েছে একটি বড় ট্র্যাকপ্যাড। 

এটির সুচনা মূল্য ৮৯৯ ডলার। 

৫. স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব এস ২:

সবচেয়ে হালকা-পাতলা উচ্চ গুনগত মান সম্পন্ন ট্যাবলেটগুলির একটি এটি। ট্যাব এস২ এর রয়েছে একটি উজ্জ্বল, স্পষ্ট অ্যামোলেড ডিসপ্লে এবং অ্যান্ড্রয়েড চালানোর জন্য একটি দ্রুতগতির ৮-কোর প্রসেসর। আর এর ক্ষুদ্রতর সংস্করণটি বেশ সস্তা। 

৮ ইঞ্চির সংস্করণটির ওজন মাত্র ০.৫৮ পাউন্ড। এর সুচনা মূল্য ৩৯৯ ডলার। আর ৯.৭ ইঞ্চির সংস্করণটির সুচনা মূল্য ৪৯৯ ডলার। 

সূত্র: ফক্স নিউজ

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ