Home > তথ্য ও প্রযুক্তি > অ্যাজমা রোগীদের মাস্ক পরা উচিত নয়

অ্যাজমা রোগীদের মাস্ক পরা উচিত নয়

অ্যাজমা (হাঁপানি) বা ফুসফুসের অন্যান্য রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ফেস মাস্ক পরা এড়ানো উচিত বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

মহামারি করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ছড়াচ্ছে। তাই অনেক দেশেই নাগরিকদের মাস্ক পরার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ভাইরাসের বিস্তার রোধের সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো সামাজিক দূরত্বের নিয়মগুলো অনুসরণ করা এবং নিয়মিত হাত ধোয়া। আর কারো মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণগুলো থাকলে সেলফ আইসোলেশনে থাকার জন্য বলা হচ্ছে।

তবে যুক্তরাজ্যের অ্যাজমা সংস্থা সতর্ক করে জানিয়েছে, ফেস মাস্ক হাঁপানি রোগীদের শ্বাস-প্রশ্বাসকে নেওয়াকে আরো কঠিন করে তুলতে পারে।

অ্যাজমা ইউকে’র মতে, অ্যাজমা আক্রান্ত কিছু লোকের জন্য ফেস মাস্ক পরা সহজ নয়। এটি শ্বাস নিতে কঠিন বোধ করাতে পারে। মাস্ক পরে শ্বাস নিতে সমস্যা হলে এটি না পরার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

নিউইয়র্ক ইউনিভাসিটির ইমিউনোলজি বিশেষজ্ঞ ডা. পারভি পারিখের মতে, ব্রঙ্কাইটিস, এম্ফিজিমা এবং ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ (সিওপিডি) সহ ফুসফুস সংক্রান্ত অন্যান্য রোগীদের ফেস মাস্ক এড়ানো উচিত।

মেইল অনলাইনকে তিনি এর ব্যখ্যায় বলেছেন, যারা ফুসফুসের গুরুতর দশার কারণে ক্যাচ-২২ অবস্থায় আছেন, তাদের সম্ভবত ফেস মাস্কের প্রয়োজন সাধারণ মানুষের চেয়ে বেশি। তবে এতে শ্বাস নেওয়াটা চ্যালেঞ্জ হতে পারে। টাইট ফেস মাস্ক কারো কারো শ্বাস নিতে সমস্যা করতে পারে।’

ডা. পারিখ আরো বলেছেন, ‘এখন গরম কালে তাপমাত্রা বাড়তে থাকায় ফেস মাস্ক পরে শ্বাসকার্য আরো কঠিন করে তুলতে পারে। এছাড়া গরমে ফেস মাস্ক অস্বস্তিকরও হতে পারে।’

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ