Home > তথ্য ও প্রযুক্তি > এ বছর যেসব সেবা বন্ধ করেছে গুগল

এ বছর যেসব সেবা বন্ধ করেছে গুগল

প্রতি বছরের মতো ২০১৯ সালেও গুগল তাদের বেশ কয়েকটি পণ্য এবং পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি মাত্র কয়েক বছর আগে চালু হলেও, কয়েকটি আবার দশক পুরোনো। বন্ধ হওয়ার কারণগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো ব্যবহারকারীর মধ্যে আগ্রহের অভাব। আবার কিছু পণ্য বছরের পর বছর ধরে চললেও বর্তমানে নতুন প্রযুক্তি এবং প্ল্যাটফর্ম আসার ফলে এগুলো প্রাসঙ্গিকতা হারিয়েছে। তাই গুগল সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে। ২০১৯ সালে গুগল এর বন্ধ হয়ে যাওয়া আলোচিত ১০টি পণ্য এবং পরিষেবার কথা জেনে নেয়া যাক।

গুগল ইউআরএল শর্টনার: ২০০৯ সালে চালু হওয়া গুগল ইউআরএল শর্টনার এ বছরের গোড়ার দিকে গুগলের বন্ধ হওয়া পণ্যের তালিকায় যোগ হয়। গুগল ইউআরএল শর্টনার সেবাটি দীর্ঘ ইউআরএলগুলোকে সংক্ষিপ্ত ইউআরএলে রূপান্তর করার সুবিধা দিতো।

গুগল প্লাস: ২০১১ সালে গুগল এই পরিষেবাটি চালু করেছিল। অবশেষে এ বছরের শুরুতে ফেসবুকের প্রতিদ্বন্দ্বী হতে চলা গুগল প্লাস সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটটি ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে বন্ধ হয়ে যায়।

গুগল অ্যালো: অ্যালো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং অ্যাপটি গুগলের সবচেয়ে স্বল্পকালীন পণ্যগুলোর মধ্যে একটি। অ্যাপটির মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপের মতো তাৎক্ষণিক বার্তাপ্রেরণ পরিষেবা চালু করার প্রচেষ্টা ছিল গুগলের।

ক্রোমকাস্ট অডিও: ২০১৫ সালে চালু হওয়া ক্রোমকাস্ট অডিও হার্ডওয়্যার ডিভাইসটির এ বছরের শুরুর দিকে বাজারজাতকরণ বন্ধ করে দেয় গুগল। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা যেকোনো ডিভাইস থেকে অডিও ইনপুট সহ স্পিকারে অডিও স্ট্রিম করতে পারত।

ইউটিউব গেমিং: ক্রোমকাস্ট অডিও এর সাথে একই বছরে চালু হয়ে এটি। ইউটিউব গেমিংয়ের লক্ষ্য ছিল ব্যবহারকারীদের লাইভ এবং রেকর্ড হওয়া গেম স্ট্রিমিং ভিডিও এর স্বাদ দেওয়া। ব্যবহারকারীদের পর্যাপ্ত আকর্ষণ পেতে ব্যর্থ হয়ে এই পরিষেবাটিও এ বছরের গোড়ার দিকে গুগলের বন্ধ হয়ে যাওয়া পণ্যের তালিকায় যুক্ত হয়।

ইনবক্স বাই জিমেইল: ২০১৫ সালে চালু হওয়া ‘ইনবক্স বাই জিমেইল’ অ্যাপটি জিমেইলের মতোই কাজ করত। মূলত নতুন ফিচারগুলোর সম্ভাব্যতা যাচাই করার জন্য এটি চালু করা হয়েছিল। তবে এর বেশিরভাগই শেষ পর্যন্ত জিমেইল অ্যাপে যুক্ত হয়েছিল।

গুগল ডেড্রিম: গুগল ডেড্রিম চালু হওয়ার প্রায় তিন বছর পরে এ বছরের শুরুর দিকে বন্ধ হয়ে যায়। এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটি প্ল্যাটফর্মটি নির্দিষ্ট অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোতে কাজ করত। তবে খুব বেশি আলোড়ন সৃষ্টি করতে ব্যর্থ হয় এই অ্যাপটি।

গুগল ক্লিপস: এটি একটি অ্যাকশন ক্যামেরা-আকারের হার্ডওয়্যার ডিভাইস। গুগল ক্লিপস ২০১৭ সালে চালু হয়েছিল।

গুগল ট্রিপস: গুগল ট্রিপস চালু হওয়ার মাত্র তিন বছরের মাথায় এর সমাপ্তি ঘটল। এটি ছিল একটি ভ্রমণ অ্যাপ, যার লক্ষ্য ছিল ব্যবহারকারীদেরকে তাদের ভ্রমণের পরিকল্পনাগুলো আরো ভালোভাবে ট্র্যাক করতে সহায়তা করা।

ড্রাগনফ্লাই: চালু হওয়ার এক বছরের মধ্যে বন্ধ হয়ে হওয়া গুগলের ড্রাগনফ্লাই ছিল বিশেষত চীনের জন্য ডিজাইন করা কোম্পানিটির একটি সার্চ ইঞ্জিন।

এছাড়াও এ বছর বন্ধ হওয়া গুগলের পরিষেবাগুলোর মধ্যে রয়েছে:

অ্যারিও

ইউটিউব ম্যাসেজেস

ব্লগ কম্পাস

গুগল ক্লাউড মেসেজিং

গুগল স্পটলাইট স্টোরিজ

গুগল জাম্প

জি স্যুট ট্রেইনিং

ফলো ইউর ওয়ার্ল্ড

ডেটালি

গুগল বুলেটিন

গুগল ফিউশন টেবিলস

গুগল ট্রান্সলেটর টুলকিট

গুগল কোরেলেইট

টুরিং বার্ড

ইউটিউব লিনব্যাক

ইউটিউব ফর নিনটেনডো থ্রিডিএস

ওয়ার্কস উইথ নেস্ট এপিআই

হ্যাংআউটস অন এয়ার

ডাটা সেভার এক্সটেনশন ফর ক্রোম

গুগল নোটিফিকেশন উইজেট (মি. জিংলস)

ইউটিউব ভিডিও অ্যানোটেশনস

গুগল রিয়েলটাইম এপিআই

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ