Home > তথ্য ও প্রযুক্তি > পরবর্তী প্রজন্মের যুদ্ধ পোশাক

পরবর্তী প্রজন্মের যুদ্ধ পোশাক

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : 

এটা দেখে হয়তো মনে হতে পারে স্টার ওয়ারর্স সিনেমার কেউ বাস্তবে চলে এসেছে, কিন্তু এই প্রেটোটাইপ (খসড়া) যুদ্ধ পোশাক ভবিষ্যতে যুদ্ধক্ষেত্রে রাশিয়ান সৈন্যদের জন্য তৈরি করা হয়েছে।

উচ্চ প্রযুক্তির এই এক্সোস্কেলেটন (স্টারওয়ার্স বা আয়রনম্যান স্যুটের মতো) এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যা শরীরে শক্তি ও কষ্টসহিঞ্চুতা বাড়াবে, শরীরের বর্ম হিসেবে কাজ করবে এমনকি পারমাণবিক বিস্ফোরণের মধ্যেও দৃষ্টি রাখা যাবে। স্টার ওয়ারর্সের স্ট্রমট্রোপার স্টাইলের মতো এই এই সামরিক স্যুটের হেলমেটের স্ক্রিনেও লক্ষ্যবস্তুর তথ্য দেখা যাবে।

ক্রাসনায়া জাভেজা সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রাশিয়ান গ্রাউন্ড ফোর্সের কমান্ডার ইন চিফ কর্নেল জেনারেল ওলেগ সালিওকভ বলেন, ‘আমরা রেটনিক-৩ গিয়ারের ভবিষ্যতের লেআউট তৈরিতে বৈজ্ঞানিক গবেষণা সম্পন্ন করেছি। প্রকল্পটির বাস্তবায়ন আমাদের সৈন্যদের যুদ্ধক্ষেত্রে বিভিন্ন কর্মক্ষমতা দেড় গুণ বেশি বাড়াবে। এটি গিয়ারের মোট ওজনের ৩০ শতাংশ হ্রাস করবে।’

পত্রিকাটির প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, এই রেটনিক গিয়ারে ৫ ধরনের সমন্বিত সিস্টেম রয়েছে- লাইফ সাপোর্ট, কমান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশন, এনগেজিং, প্রোটেকশন এবং এনার্জি সেভিং। দিন-রাত যেকোনো সময় যেকোনো ধরনের আবহাওয়ায় ব্যবহার উপযোগী করে এটি তৈরি করা হয়েছে।

​নতুন এই রেটনিক গিয়ারে মোট ৫৯টি আইটেম যুক্ত রয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন বুলেটপ্রুফ ভেস্ট এবং প্রটেকটিভ হেলমেট, একটি কমব্যাট পোশাক, সক্রিয় প্রটেকশনসহ একটি হেডসেট, প্রটেকটিভ গ্লাস, একটি গ্রেনেড লঞ্চার, অ্যাসাল্ট রাইফেল, স্নাইপার রাইফেল, সারাক্ষণ শক্রকবলিত এলাকা পর্যবেক্ষণ ডিভাইস, ইউনিফায়েড অপটিক্যাল স্ক্যানিং টেকনোলজি এবং থার্মাল ইমাজিং প্রযুক্তি।

সালিওকভ আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন যে, টিএসএনআইআইটোচমাশ কর্তৃক রেটনিক-৩ কিট তৈরি করা হচ্ছে, যা হবে এক্সোস্কেলেটন স্যুট। সম্প্রতি মস্কোর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে এই আত্মরক্ষামূলক যুদ্ধ পোশাকটি প্রদর্শন করা হয়।

হেলমেটে থাকা ডিসপ্লেতে লক্ষ্যবস্তুর তথ্য, আবহাওয়ার তথ্য, স্বাস্থ্যে তথ্য দেখা যাবে এবং এই হেলমেট বুলেটপ্রুপ হওয়ায় কয়েকটি বুলেট ঠেকাতে সক্ষম।

রসটেক আর্মামেন্ট ক্লাস্টারের ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিরেক্টর সার্গেই আব্রামভ বলেন, ‘প্রযুক্তির লেভেল এবং উপাদানগুলোর নির্ভরযোগ্যতা সৈন্যদের আউটফিট অনেক উন্নতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। ফলে যুদ্ধক্ষেত্রে সৈন্যদের ক্ষমতাস্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

প্রদর্শনীতে ৩ প্রজন্মের রাশিয়ান রেটনিক কমব্যাট গিয়ার প্রদর্শন করা হয়

নতুন এই আউটফিট শকপ্রুফ, যা ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক প্রভাবগুলো প্রতিরোধী এবং পারমাণবিক বিস্ফোরণের পরও এর পর্যবেক্ষণ ক্ষমতা কার্যকরী। নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির উপ প্রধান ওলেগ চিকেরাভ বলেন, ‘বর্তমানে প্রদর্শিত এই স্যুট আমরা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে ডেভেলপ করবো।’

এই সামরিক স্যুটের হেলমেটে অস্ত্র এবং ম্যাপসের মতো বিষয়গুলো পরীক্ষা করার মতো টাস্ক লাইট থাকবে এছাড়া পপ-আপ ডিসপ্লেতে যুদ্ধক্ষেত্রে পরিকল্পনা সাজানো মতো কাজে ব্যবহার করা যাবে। শক্তিশালী জুতা গুলি, ধ্বংসাবশেষ, আগুন এবং ল্যান্ড মাইন প্রতিরোধী। এছাড়াও জুতা ল্যান্ড মাইন শণাক্ত করতে সক্ষম।

রাশিয়ার সামরিক বাহিনী রোবটের ব্যবহার বৃদ্ধির পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে তারা একটি দূর নিয়ন্ত্রিত ট্যাঙ্ক পরীক্ষা করে। দূর থেকে পরিচালনা করার সুবিধাসম্পন্ন এই যুদ্ধ ট্যাঙ্কে ৩০মিমি বন্দুক এবং ৬টি মিসাইল পরীক্ষামূলভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। রাশিয়ান সামরিক বাহিনী স্থল, সমুদ্র, আকাশপথে যুদ্ধের ক্ষেত্রে মানব সৈন্যের পরিবর্তে রোবট সৈন্য ব্যবহারে আগ্রহী।

আরআইএ নভোস্তি সংবাদ সংস্থাকে গতবছর অ্যাডভান্সড রিসার্চ ফাউন্ডেশনের প্রধান লেফটেনেন্ট জেনারেল অ্যান্ডে গ্রেগরিভ বলেছিলেন, ‘আমি আরো বেশি রোবোটাইজেশন দেখতে পাচ্ছি। আসলে, ভবিষ্যতের যুদ্ধক্ষেত্রে অপারেটর ও মেশিন জড়িত থাকবে। সৈন্যরা যুদ্ধক্ষেত্রে একে অপরের ওপর গুলি চালাবে না।’

তথ্যসূত্র : ডেইল মেইল

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ