ওয়ারীকে রেড জোন করতে মন্ত্রণালয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের চিঠি

পরীক্ষামূলকভাবে ওয়ারীকে ‘রেড জোন’করার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। শনিবার (২৭ জুন ) মহাখালী থেকে নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এই সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এই তথ্য জানান।

নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘ঢাকা মহানগরীর ওয়ারীতে নির্ধারিত এলাকা চিহ্নিত করে সেখানে পরীক্ষামূলক রেড জোন বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

নাসিমা সুলতানা আরও বলেন, ‘জোন বিষয়ে যে কমিটি করা হয়েছে, তাতে ১৩ জন সদস্য আছেন।স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক এই কমিটির চেয়ারপারসন।’

রেড জোন, ইয়েলো জোন বা গ্রিন জোন নির্ধারণকে চলমান প্রক্রিয়া উল্লেখ করে নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদফতরের নেতৃত্বে জোনিং পদ্ধতি নিয়ে পরামর্শক কমিটি কাজ করছে। এই জোন নির্ধারণ করা হয় সংক্রমণ বিস্তারের সর্বাধিক ঝুঁকি, মাঝারি ঝুঁকি ও কম ঝুঁকির ওপর নির্ভর করে।’

জোনিং পদ্ধতি স্থায়ী কোনো বিষয় নয় জানিয়ে নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘তাই স্থায়ীভাবে কোনো অঞ্চল বা এলাকাকে রেড জোন ঘোষণা বা বাতিল করা হয়নি। দেশের বিভিন্ন স্থানে কিছু এলাকায় রেড জোন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।’

এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘পরামর্শক কমিটির গাইডলাইন অনুযায়ী পূর্ব রাজাবাজারে রেড জোন চলমান আছে।’ স্থানীয় পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে প্রয়োজন অনুসারেই রেড জোন বাস্তবায়নের কাজ চলছে বলেও তিনি জানান।

%d bloggers like this: