Home > সারাদেশ > শিবগঞ্জে শতবর্ষী রমেজার ভাগ্যে জোটেনি বয়স্কভাতা

শিবগঞ্জে শতবর্ষী রমেজার ভাগ্যে জোটেনি বয়স্কভাতা

বিশেষ প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের রমেজা বেগমের বয়স ১০০ বছর পেরিয়ে গেছে অনেক আগে। জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী তার বয়স ১০৭ বছর হলেও তার পরিবারের দাবী তার ১২৫ বছর। আশপাশে কয়েকটি ইউনিয়নের তার সমবয়সী আর কেউ নেই।

তবে অন্যরা বয়স্কভাতা পেলেও রমেজার ভাগ্যে তা জোটেনি। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের হাজারবিঘি গ্রামে। সরজমিনে গিয়ে কথা হয় রমেজা বেগমের সাথে। রমেজা বেগম স্পষ্ট করে কথা না বলতে না পারলেও পুত্রবধূ রোজিয়ার সহায়তায় কিছু কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন।

রমেজা বেগম তার পুত্রবধূর সহায়তায় জানান, আনুমানিক ১৮৯৫ সালে শাহাবাজপুর ইউনিয়নের তেররশিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। (যদিও তার জাতীয় পরিচয় পত্রে ১৯১০ সালে জন্মগ্রহণের কথা উল্লেখ রয়েছে) তার পিতার নাম মৃত হাসিমুদ্দিন, মাতার নাম মুত ফুলবত বেগম। প্রায় ১০-১২বছর বয়সে হাজারবিঘী গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিমের সাথে রমেজার বিয়ে হয়। দুই ছেলে ও এক কন্যার জন্ম গ্রহন করার পরপরই তার স্বামী আব্দুল হাকিম আনুমানিক ১৯৬৩ সালে মারা যান।

তার পুত্রবধু জানান, কয়েক বছর থেকে সে আর ভালভাবে চলাফেরা করতে পারে ন। ১২০ বছর বয়স পর্যন্ত তিনি দিব্যি চলাফেরা করতে পেরেছেন। খাওয়ার ব্যাপারে কোন কিছুতে না করেনি। এখনো প্রিয় খাবার রুটি ও  তেলের পিঠা। এ পর্যন্ত নামাজ আদায়সহ সব ধরণের প্রার্থনা ঠিক মত করতে পারে। রমেজা বেগমের ছেলে মোখলেশুর রহমান জানান, কোন মেম্বার, চেয়ারম্যান কোন খোঁজ খবর নেয়নি।

এলাকার দোকানদার নজরুল ইসলাম, শিক্ষক তোসির উদ্দিন ও আওয়াামী লীগ নেতা খাদেমুল ইসলাম জানান, শুধু শাহাবাজপুরেই নয়, বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে রমেজা বেগমের সমবয়সী আর কেউ নেই। তারা আরও জানান, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রমেজা বেগমের বয়স্ক ভাতার কার্ড হওয়া উচিত ছিল কিন্তু মেম্বার চেয়ারম্যানদের গাফলিত কারণে তা হয়নি। যা অত্যন্ত দু:খজনক।

এব্যাপারে শাহাবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হক জানান, এ ঘটনাটি আমার জানা ছিল না। এ বৃদ্ধার সাথে দেখা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কাঞ্চন কুমার জানান, ঘটনাটি তারও জানা ছিল না। স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যান তালিকাভুক্ত করে না পাঠায় বয়স্ব ভাতার কার্ড হয়নি। তবে জরুরী ভিত্তিতে তার বয়স্ক ভাতার কার্ড তৈরীর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ