Home > সারাদেশ > পরকীয়ায় বাধার জের রাজশাহীতে গৃহবধূকে হত্যা

পরকীয়ায় বাধার জের রাজশাহীতে গৃহবধূকে হত্যা

দূর্গাপুর প্রতিনিধি, জনতারবাণী: দুর্গাপুরে স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্ত্রীকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী আমজাদ আলীকে আটক করে দুর্গাপুর থানা পুলিশ। নিহতের নাম রওশন আরা। তিনি দুর্গাপুর উপজেলার সাহাবাজপুর গ্রামের আবু বাক্কারের কন্যা।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, ১০ বছর আগে নরসিংদী জেলা সদরের বাসিন্দা আব্দুল বাতেনের ছেলে আমজাদ আলীর সঙ্গে দুর্গাপুর উপজেলার সাহাবাজপুর গ্রামের আবু বাক্কারের কন্যা রওশন আরার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে আমজাদ শ্বশুর বাড়িতে ঘরজামাই হিসেবে থাকতেন।
নিহতের মা সেলিনা বেগম বলেন, গত তিন বছর থেকে ঢাকায় গার্মেন্টসের এক মেয়ের সঙ্গে আমজাদ আলী প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। সে সব সময় মোবাইল ফোনে ওই মেয়ের সঙ্গে কথা বলে এবং মাঝেমধ্যে তার সঙ্গে দেখা করতে ঢাকায় যেত। বিষয়টি বুঝতে পেরে আমার মেয়ে এর প্রতিবাদ করে। তারপর থেকে প্রায় সব সময় কারণে-অকারণে মেয়েকে নির্যাতন করত আমজাদ।
নিহতের মামা সাখাওয়াত হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে আমজাদ আলী বাড়িতে বসে থেকে মোবাইল ফোনে গার্মেন্টসের ওই মেয়ের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে কথা বলছিল। এ সময় রওশন আরা স্বামীকে ওই মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে নিষেধ করে। তখন আমজাদ রওশনকে মেরে ফেলে ঢাকায় চলে যাবে বলে হুমকি দেয়। এরপর স্বামী-স্ত্রী ৯ বছরের ছেলে রাশেদুলকে নিয়ে রাতে ঘুমিয়ে পড়ে। গতকাল ভোররাতে নিজ শয়নকক্ষে বালিশচাপা দিয়ে রওশনকে হত্যা করে আমজাদ আলী। ঘটনা বুঝতে পেরে পুত্র রাশেদুল কান্নাকাটি করতে থাকলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে। তারা রওশন আরার লাশ দেখেই আমজাদ আলীকে আটক করে। পরে তাকে উত্তমমধ্যম দিয়ে থানায় খবর দেয়।
দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল কুমার চক্রবর্তী বলেন, স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে আমজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সে আসলেই হত্যা করেছে কিনা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে স্পষ্ট বোঝা যাবে। এ ঘটনায় গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যামামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।
আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ