Home > সারাদেশ > রাবিতে দুই ছাত্রীকে ছাত্রলীগকর্মীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ

রাবিতে দুই ছাত্রীকে ছাত্রলীগকর্মীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি
জনতার বাণী,
রাজশাহী: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের দুই
কর্মীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে
দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে যৌন হয়রানির
অভিযোগ আনা দুই ছাত্রী মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের
প্রক্টর দপ্তরে আলাদাভাবে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
একই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ
অভিযোগ কমিটির কাছেও তারা এ বিষয়ে অভিযোগ
করেছেন।
অভিযুক্ত ওই দুই ছাত্রলীগ কর্মী হলেন— বিশ্ববিদ্যালয়ের
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের
শিক্ষার্থী সুজন প্রামাণিক (শিক্ষাবর্ষ-২০১১-১২,
রোল-১২০৮০৮৫) ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের
শিক্ষার্থী লিটন।
লিখিত অভিযোগে ওই দুই ছাত্রী উল্লেখ করেন, তারা
সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের
কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পেছনের রাস্তা দিয়ে বড়
ভাইয়ের জন্মদিন পালন শেষে হলে ফিরছিলেন। রাস্তার বাম
পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ছাত্রলীগের টেন্টের সামনে
তাদের দুই জনের মাঝ দিয়ে চলে যেতে চেষ্টা করে
সুজন ও লিটন।
এ সময় ওই দুই ছাত্রী শরীরে ধাক্কা লাগার ভয়ে দ্রুত রাস্তার
এক পাশে চলে যান। তখন দুই ছাত্রলীগকর্মী তাদের পথ
রোধ করে দাঁড়িয়ে বিভিন্ন অশালীন ভাষায় কথা বলতে
থাকে।
লিখিত অভিযোগে আরো বলা হয়, ছাত্রলীগকর্মীদের
এমন কর্মকাণ্ডের এক পর্যায়ে তাদের একজন ভয়ে ও
লজ্জায় কাঁদতে শুরু করেন। অপর ছাত্রী ছাত্রলীগের
এসব আচরণের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে তাকেও
অশালীন ভাষায় বিভিন্ন কথা বলতে থাকে এবং শরীরে হাত
দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু এসময় কিছু দূরে দাঁড়িয়ে থাকা
তাদের বিভাগের বড় ভাই ও আপুরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে
ছাত্রলীগকর্মীরা নিপীড়ন বন্ধ করে দেয়।
ঘটনাস্থলে উপস্থিতরা তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়
কর্তৃপক্ষকে জানালে সহকারী প্রক্টর মো. সোলাইমান
চৌধুরী ও পুলিশকে ঘটনাস্থলে আসেন। কিন্তু যৌন
নিপীড়েনের অভিযোগ দেওয়ার পরেও বিশ্ববিদ্যালয়
প্রশাসন ও পুলিশ ওই দুই ছাত্রলীগকর্মীকে আটক করেনি।
লিখিত অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, এ ঘটনায় ওই দুই
ছাত্রী নিজেদের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ বিষয়ে
তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার দাবি
জানান তারা।
অপর একটি অভিযোগে ওই ছাত্রীদের একজন উল্লেখ
করেন, তিনি বাইসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময়
ছাত্রলীগকর্মী সুজন প্রামাণিক কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে
সোমবার দুপুর ১টার দিকে তার পথ রোধ করে দাঁড়ায়। ওই
ছাত্রীকে সাইকেল থেকে নামিয়ে বিভিন্নভাবে
অশালীন ভাষায় কথা বলতে থাকে। এতে তিনি ক্যাম্পাসে
চলাচলে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলেও
অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের কর্মী সুজন প্রামাণিকের
মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তার ব্যবহৃত ফোন
নম্বরটি অন্য একজন রিসিভ করে বলেন, ‘সুজন দলীয় মিটিংয়ে
আছে। সে এখন কথা বলতে পারবে না।’
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান রানা বলেন,
ছাত্রী হয়রানির বিষয়টি প্রমাণ পেলে সুজনসহ জড়িতদের
বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ অভিযোগ
কমিটির সভাপতি ও মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মাহবুবা কানিজ
কেয়া বলেন, ‘কোনো ছাত্রী যৌন হয়রানির শিকার হলে
আমাদের কাছে অভিযোগ করতে পারেন। তবে
কোনো অভিযোগ জমা হলে সে বিষয়ে তদন্তের
স্বার্থে বাহিরে কিছু বলিনা।’

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী
শিরোনামঃ