Home > সারাদেশ > ফেনী কারাগারে ধর্ষক-বাদীর বিয়ে

ফেনী কারাগারে ধর্ষক-বাদীর বিয়ে

বিয়ে করার শর্তে ধর্ষণ মামলার আসামিকে জামিন দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। গত ১ নভেম্বর যাকে ধর্ষণ করেছিলেন, তাকে বিয়ে করলেন ফেনীর সোনাগাজীর জিয়াউল হক জিয়া।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে ফেনী জেলা কারাগারের সামনে বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বর ও কনেসহ উভয় পক্ষের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, সকালে উভয় পক্ষের লোকজন মিষ্টি নিয়ে জেলা কারাগারের সামনে উপস্থিত হন। পরে জিয়া ও ভুক্তভোগীর আইনজীবীরা সেখানে আসেন। বিয়ে পড়াতে আসেন জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামানসহ কাজী আবদুর রহিম। ছয় লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন তিনি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘গত ১ নভেম্বর বিয়ে করার শর্তে প্রেমিকাকে ধর্ষণের ঘটনায় কারাবন্দী জিয়াউল হক জিয়াকে জামিন দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন হাইকোর্ট। সে লক্ষ্যে আজ ওই তরুণীর সঙ্গে জিয়ার বিয়ে হলো। বিয়ের দেনমোহর ধার্য করা হয়েছে ছয় লাখ টাকা।’

এ বিয়ে সম্পন্ন হওয়ায় খুশি হয়েছেন জিয়া। দুই পরিবারও বিয়ে নিয়ে খুশি। তবে এ ব‌্যাপারে জিয়ার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ‌্য, গত ২৭মে জেলার সোনাগাজীর চরদরবেশ এলাকার এক তরুণীকে ধর্ষণ করেন তার প্রেমিক জহিরুল ইসলাম জিয়া। ঘটনার দিনই জিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী। গত ২৯মে জিয়াকে গ্রেপ্তার করে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ।

পরে জামিনে মুক্তি পেলে ভুক্তভোগীকে জিয়া বিয়ে করবেন, তার পরিবার এ আবেদন পূর্বক আদালতের কাছে জামিন চেয়ে আপিল করে। পরে হাইকোর্ট জিয়ার জামিন না দিয়ে কারাফটকেই ভুক্তভোগীর সঙ্গে তার বিয়ের আয়োজনের জন্য ফেনী কারাগারের তত্ত্বাবধায়ককে নির্দেশ দেন।

একই সঙ্গে বিয়ের বিষয়ে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলেন। তারই ধারাবাহিতায় আজ জিয়া ও তার প্রেমিকোর বিয়ে অনুষ্ঠিত হলো।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ