Home > সারাদেশ > ভারত থেকে আসা ৪০ ট্রাক পেঁয়াজের বেশিরভাগই নষ্ট

ভারত থেকে আসা ৪০ ট্রাক পেঁয়াজের বেশিরভাগই নষ্ট

গরম আর বৃষ্টির মধ্যে ভারতের ঘোজাডাঙ্গায় সপ্তাহখানেক আটকেথাকা ৪০টি ট্রাকের বেশিরভাগ পেঁয়াজ পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে বড় অঙ্কের ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে বলে দাবি করছেন আমদানিকারকরা।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে ভোমরা স্থলবন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন জানান, গত তিন দিনে ভারত থেকে ৪০টি ট্রাকে প্রায় এক হাজার মেট্রিক টন ভারতীয় পেঁয়াজ এসেছে। এই ট্রাকগুলো পারের অপেক্ষায় ভারতে আটকে ছিল।

ভোমরা কাস্টমসের সহকারী কমিশনারের কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। তখন আড়াই শতাধিক ট্রাক ভোমরা স্থলবন্দরের বিপরীতে ভারতের ঘোজাডাঙ্গায় আটকে ছিল বলে জানিয়েছেন ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম।

তিনি মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে জানান, গত ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যে সমস্ত পেঁয়াজের ট্রাকের কাগজপত্র প্রস্তুত ছিল, এমন ৪০টি ট্রাক গত তিন দিনে ভোমরা স্থলবন্দরে প্রবেশ করেছে। তবে ঘোজাডাঙ্গায় এক সপ্তাহ ধরে আটকে থাকায় এসব পেঁয়াজের বেশিরভাগই নষ্ট হয়ে গেছে। এর ফলে ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে দারুন ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, আরও ১০ থেকে ১২ ট্রাক পেঁয়াজ ছাড় করানো রয়েছে। সেগুলো আজ মঙ্গলবার থেকে পর্যায়ক্রমে ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করবে। এছাড়াও, এখনও দুই শতাধিক পেঁয়াজবাহী ট্রাক ভারতে আটকে রয়েছে। এরমধ্যে কিছু ট্রাক ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন; আর কিছু পেঁয়াজ সেখানে আনলোড করে স্থানীয়ভাবে বিক্রি করে ফেলছেন ব্যবসায়ীরা।

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক পঙ্কজ কুমার দত্ত বলেন, রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় তার দুই ট্রাক পেঁয়াজ ভোমরা স্থলবন্দরে এসেছে। ঘোজাডাঙ্গায় প্রায় এক সপ্তাহ আটকে থাকায় রোদ ও বৃষ্টিতে এসব পেঁয়াজের বেশিরভাগ নষ্ট হয়ে গেছে। এতে ট্রাক প্রতি ৪/৫ লাখ টাকারও বেশি ক্ষতি হয়েছে তার। কীভাবে এ ক্ষতি কাটিয়ে উঠবেন বুঝতে পারছেন না তিনি।

ভোমরা স্থলবন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন জানান, সর্বশেষ সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর এক ট্রাক পেয়াঁজ ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করেছে। এর আগের দুই দিনে এ বন্দর দিয়ে মোট ৮২৯ মেট্রিকটন পেঁয়াজ দেশে এসেছে। তিনি আরো জানান, আজ আরো কিছু পেঁয়াজের ট্রাক ভারত থেকে বন্দরে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিঅ্যান্ডএফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কান্তি দত্ত মোবাইল ফোনে জানান, পচন ধরায় ৮ ট্রাক পেঁয়াজ স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন আমদানিকারকরা। বেশ কয়েকটি পেঁয়াজবাহী ট্রাক ঘোজাডাঙ্গা বন্দর থেকে ফিরে গেছে বলেও জানান তিনি।

ভোমরা কাস্টমস সহকারী কমিশনারের কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, গত মার্চ থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভোমরা বন্দর দিয়ে ১ লাখ ৯৫৬ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ