Home > সারাদেশ > আয়শা হত্যার দায় স্বীকার করেছে নাজমুল

আয়শা হত্যার দায় স্বীকার করেছে নাজমুল

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর ভাটারায় গৃহকর্মী আয়শা বেগম (৩০) হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডে জড়িত নাজমুল গ্রেপ্তার হওয়ার পর এই হত্যাকাণ্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে।

রোববার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (উত্তর) গুলশান জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ কমিশনার মো. গোলাম সাকলায়েন জানান, জিজ্ঞাসাবাদে নাজমুল এই হ্ত্যার দায় স্বীকার করেছেন। তাকে শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সায়দাবাদ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ডে নেয়ার জন্য আবেদন জানানো হবে।

পুলিশ সূত্র জানায়, দুই বছর আগে আয়শার ট্রাক চালক স্বামী অন্য নারীকে বিয়ে করে সংসার শুরু করেন। আয়শা ও দুই সন্তানের খোঁজ নিতেন না। স্বামীকে নিজের কাছে ফেরাতে ব্যাকুল হয়ে পড়েন আয়শা। এরমধ্যে প্রতিবেশী নাজমুল নামের এক প্রাইভেট কার চালকের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। স্বামীকে ফেরানোর জন্য নাজমুলকে ২৪০০ টাকাও দেন আয়শা। আয়শার এই দুর্বলতার সুযোগে নাজমুল কৌশলে তার সাথে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। ৪ জুলাই মধ্যরাতে নাজমুল আয়শার ঘরে যায়। এ সময় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্ায়ে আয়েশাকে ঘুমের ওষুধ খাওয়ায় নাজমুল। আয়শা ঘুমিয়ে পড়লে গলায় জিআই তার পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করে।

গোলাম সাকলায়েন বলেন, ‘আয়শা হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত জিআই তার এবং মোবাইল ফোনের সিম কার্ড ও ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ৫ জুলাই দুপুরে রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকার ছোলমাইদ কবরস্থান রোডের একটি টিনশেড বাসা থেকে আয়শা বেগমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আয়েশা নোয়াখালী জেলার সুবর্নচর থানার চর আবদা গ্রামের মো. খোকনের মেয়ে। জয় (১২) এবং ঐশী (৮) নামে তার দুই সন্তান রয়েছে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ