Home > সারাদেশ > সুশাসন প্রতিষ্ঠায় নারী-পুরুষ সমতার বিকল্প নেই

সুশাসন প্রতিষ্ঠায় নারী-পুরুষ সমতার বিকল্প নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক : সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অন্তর্ভুক্তিমূলক অগ্রগতি অর্জন করতে কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত সকল পর্যায়ে নারী-পুরুষ সমতার দৃষ্টিকোণ থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করার কোন বিকল্প নেই বলে মনে করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৮ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে টিআইবি’র কার্যালয়ের মেঘমালা সম্মেলন কক্ষে সমবেত হন ১৫ জন নারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)।

‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা, সুশাসন ও নারী’ শীর্ষক এ কর্মশালায় অংশ নেওয়া উপজেলাগুলো হল: মুক্তাগাছা, ময়মনসিংহ; ঝিনাইগাতী, শেরপুর; সিলেট সদর, সিলেট; ভান্ডারিয়া ও কাউখালী, পিরোজপুর; লোহাগড়া, নড়াইল; বাঘারপাড়া, যশোর; বেলাব, নরসিংদী; জাজিরা, শরীয়তপুর; মেঘনা, কুমিল্লা; মতলব উত্তর, চাঁদপুর; বাগাতিপাড়া, নাটোর; নাটোর সদর, নাটোর; ডিমলা, নীলফামারী এবং লালমনিরহাট সদর।

কর্মশালায় নারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে স্বাগত জানিয়ে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘টেকসই লক্ষ্যমাত্রার অভীষ্ট লক্ষ্য ৫ ও ১৬ এর সাথে সরকারের ভিশন ২০২১ ও সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মাঠপর্যায়ে নারী হিসেবে কাজ করতে গিয়ে নানাবিধ চ্যালেঞ্জ ও সুযোগ-সুবিধার অপ্রতুলতার পরও নারীরা কর্মকর্তা হিসেবে উল্লেখযোগ্য সাহসিকতা প্রদর্শণ করেছে ও সফলতা অর্জন করেছে।’

ড. জামান বলেন, ‘নারীর ক্ষমতায়ন এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি সর্বোপরি সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অন্তর্ভুক্তিমূলক অগ্রগতি অর্জন করতে হলে কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত সকল পর্যায়ে নারী-পুরুষ সমতার দৃষ্টিকোণ থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করার কোন বিকল্প নেই। নারীদের উজ্জীবিত, অনুপ্রাণিত, সংগঠিত এবং ক্ষমতাশালী করার ক্ষেত্রে নারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।’

কর্মশালার পরিচিতি পর্বে উপস্থিত ছিলেন টিআইবি’র উপদেষ্টা – নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের।

‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা, সুশাসন ও নারী’ বিষয়ে উপস্থাপনা করেন টিআইবি’র আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের পরিচালক ড. রিজওয়ান-উল-আলম। এছাড়া টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে অন্তর্ভুক্তিমূলক কৌশলের ওপর অধিবেশন পরিচালনা করেন বিশিষ্ট মানবাধিকারকর্মী অ্যাডভোকেট ইউ. এম. হাবিবুন নেসা।

এরপর ‘নারী অধিকার ও ক্ষমতায়ন প্রক্রিয়ায় সুশাসন: উপজেলা পর্যায়ে করণীয়’ বিষয়ের ওপর অংশগ্রহণকারী নারী কর্মকর্তাবৃন্দ দলগত কাজে অংশগ্রহণ করেন। বিকেলে সমাপনী পর্বে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করেন ড. ইফতেখারুজ্জামান।

এবারের আন্তর্জাতিক নারী দিবসে টিআইবি’র প্রতিপাদ্য ‘টেকসই উন্নয়ন ও সুশাসন: চাই ক্ষমতায়িত নারী, জাগ্রত বিবেক’। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে টিআইবি’র উদ্যোগে ঢাকায় নারী উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের নিয়ে কর্মশালা আয়োজনের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ৩২টি দলের অংশগ্রহণে আগামী ৩-৪ মার্চ দু’দিনব্যাপী জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ