Home > সারাদেশ > টর্নেডোর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ, বাঘা ও লালপুর

টর্নেডোর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ, বাঘা ও লালপুর

বাঘা ও লালপুর : রাজশাহী ও নাটোর জেলার বাঘা এবং লালপুর উপজেলায় আকষ্মিক ঝড়ে ১২টি গ্রামের প্রায় ৫০০ ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। মঙ্গলবার দুপুরে ঝড়ের সময় বাঘায় একজন নিহত ছাড়াও আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন।
বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা জানান, উপজেলার আড়ানী ও বাউসা ইউনিয়নের উপর দিয়ে ঝড় বয়ে যায়। ঝড়ে আড়ানী ইউনিয়নের হরিপুর, বেড়েরবাড়ি, ঝিনা, নুরনগর, গোচর ও খয়েরমিল এবং বাউসা ইউনিয়নের দিঘা ও খাগর বাড়িয়া এলাকার প্রায় দুই শতাধিক ঘরবাড়ি বিধস্ত হয়। এসময় ঝড়ের কবলে পড়ে ছাদের আলী (৫৫) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। আড়ানীর গোচর গ্রামের ছাদের আলী ঝড়ের সময় সাইকেল থেকে পড়ে তার মৃত্যু হয়।
বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক জানান, প্রায় চার কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ঝড়টি বেয়ে যায়। এতে ঘরবাড়ির পাশাপাশি মসজিদ, মন্দির ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাল উড়ে গেছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে গাছ পালার।
এদিকে, নাটোর-১ আসনের (লালপুর বাগাতিপাড়া) সংসদ সদস্য এ্যাড. আবুল কালাম জানান, নাটোরের লালপুর ও আড়বাব ইউনিয়নের ৯টি গ্রামের উপর দিয়ে ঝড় বয়ে গেছে। এর মধ্যে লালপুর ইউনিয়নের মোমিনপুর, বাকনাই, আরাজি বাকনা, মোহরকয়া নতুনপাড়া এবং আড়বাব ইউনিয়নের ঢুষপাড়া, রঘুনাথপুর, হাসিমপুর, লক্ষণবাড়িয়া ও রহিমপুর গ্রামের তিন শতাধিক ঘরবাড়ি লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। এসময় আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। যাদের মধ্যে ৭ জনকে লালপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।
আহতদের মধ্যে মমিনপুর গ্রামের আকবর আলীর স্ত্রী আরজিনা খাতুন (৩০), আব্দুল হান্নানের মেয়ে মাহি (১০), ঢুষপাড়া গ্রামের ছাদেক আলীর মেয়ে শবনাজ (১২), আমজের আলীর ছেলে মিজানুর রহমান (৪০), হাসিমপুর গ্রামের আজাহারের ছেলে আরজেদ আলী (৩০), রঘুনাথপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের স্ত্রী আরজিনা (২৫), মোহরকয়া গ্রামের সাজদার মন্ডলের স্ত্রী তৌহিদা বেগমকে (২৮) লালপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে ক্লিক করুন........
Ads by জনতার বাণী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

শিরোনামঃ